প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] রোগীকে নির্দিষ্ট কোম্পানীর ওষুধ দেয়া বাবদ অর্থ গ্রহণ; কী বলে ইসলাম

ইসমাঈল আযহার: [২] বাংলাদেশের ডাক্তারদের এমন পদ্ধতি আছে যে কোনো কোম্পানীর অষুধ লিখলে সে কোম্পানী থেকে তাকে বাড়তি অর্থ প্রদান করে থাকে। এ অর্থ গ্রহণের শরয়ি বিধান কী?

[৩] যদি হাদিয়া ও কমিশন পাবার আশায় অপ্রয়োজনীয় অষুধ লেখা না হয়, বা রোগীর জন্য উপকারী নয় এমন ওষুধ লেখা না হয়, তাহলে উক্ত হাদিয়া ও টাকা নেয়া জায়েজ আছে।

[৪] হাদিয়া-গিফট বা টাকা পাবার আশায় রোগীর জন্য উপকারী নয় এমন ওষুধ লেখা হয়, বা অহেতুক বেশি বেশি ওষুধ লেখা হয়, তাহলে জায়েজ হবে না।

[৫] ইবনু সীরীন, আতা, ইবরাহীম ও হাসান (রহ.) দালালীর মজুরীতে কোন দোষ মনে করেননি। ইবনু ‘আববাস (রাঃ) বলেন, যদি কেউ বলে যে, তুমি এ কাপড়টি বিক্রি করে দাও। এতো এতো এর উপর যা বেশী হয় তা তোমার, এতে কোন দোষ নেই।

[৬] ইবনু সীরীন (রহ.) বলেন, যদি কেউ বলে যে, এটা এত এত দামে বিক্রি করে দাও, লাভ যা হবে, তা তোমার, অথবা তা তোমার ও আমার মধ্যে সমান হারে ভাগ হবে, তবে এতে কোন দোষ নেই। নাবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, মুসলিমগণ তাদের পরস্পরের শর্তানুযায়ী কাজ করবে। (সহীহ বুখারী-১/৩০৩)

[৭] তোমরা অন্যায়ভাবে একে অপরের সম্পদ ভোগ করো না। এবং জনগণের সম্পদের কিয়দংশ জেনে-শুনে পাপ পন্থায় আত্নসাৎ করার উদ্দেশে শাসন কর্তৃপক্ষের হাতেও তুলে দিও না। (সূরা বাকারা-১৮৮)

[৮] হে ঈমানদারগণ! তোমরা একে অপরের সম্পদ অন্যায়ভাবে গ্রাস করো না। কেবলমাত্র তোমাদের পরস্পরের সম্মতিক্রমে যে ব্যবসা করা হয় তা বৈধ। (সূরা নিসা-২৯)

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত