প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বিশ্ব নেতারা করোনায় আক্রান্ত

ইনকিলাব : [২] বিশ্ব জুড়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন বিভিন্ন বিশ্ব নেতাসহ বেশ কয়েক জন নামী ব্যক্তিত্ব। বিশ্ব নেতাদের মধ্যে সর্বশেষ আত্রান্ত হয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পিটার ডটন। মার্কিন অ্যাটর্নি জেনারেল উইলিয়াম পি বার এবং প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের কন্যা ও উপদেষ্টা ইভানকার সাথে দেখা করার একদিন পরেই গতকাল তার শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতির খবর জানা গেল।

[৩] এদিন অসুস্থ হয়ে পড়েন ব্রাজিলের নেতা জায়ের বলসোনারো। তার শরীরেও করোনার উপসর্গ দেখা গেছে। তবে তার পরীক্ষার ফলাফল এখনো জানা যায়রি। এদিকে কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর স্ত্রী সোফি গ্রেগোয়ার ট্রুডোর শরীরে করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব ধরা পড়েছে। কানাডার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে এক বিবৃতিতে বৃহস্পতিবার এ কথা জানানো হয়েছে। চিকিৎসকদের পরামর্শ মেনে তিনি নির্ধারিত সময় আইসোলেশনে থাকবেন। সেইসঙ্গে আরও বলা হয়েছে, সোফির ক্ষেত্রে রোগের উপসর্গ এখনও মৃদু। তবে কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো সুস্থই আছেন। তার মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, এখনও অবধি কোনও উপসর্গ ধরা পড়েনি তার ক্ষেত্রে। তবে সতর্কতামূলক পদক্ষেপ হিসেবে চিকিৎসকদের পরামর্শ মেনে তিনিও ১৪ দিন আইসোলেশনে থাকবেন।

এর আগে মারাত্মক ছোঁয়াচে এই রোগের শিকার হয়েছেন খোদ ব্রিটেনের স্বাস্থ্যমন্ত্রী নাদিন ডরিস। বৃহষ্পতিবার স্বাস্থ্যপরীক্ষার রিপোর্ট হাতে পেয়ে বাষট্টির বছর বয়সী ডরিস নিজেই নিজেকে ‘কোয়ারেন্টাইন’ করে রেখেছেন বাড়িতে। গত ৫ মার্চ ডরিসের কিছু উপসর্গ ধরা পড়ে। ওই দিনই ১০ ডাউনিং স্ট্রিটে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন-সহ প্রায় একশো জন এমপি-মন্ত্রী-সচিবের সঙ্গে দেখা গিয়েছিল তাকে। আরও আক্রান্ত হয়েছেন স্পেনের রানি লেতিজিয়া। স্পেন সরকারের এক মন্ত্রীও করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। ধারণা করা হচ্ছে ওই মন্ত্রীর সংস্পর্শে এসেই করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন রানি।

বিখ্যাত ব্যাক্তিদের মধ্যে আক্রান্ত হয়েছেন অস্কারজয়ী মার্কিন অভিনেতা টম হ্যাঙ্কস এবং তার স্ত্রী রিটা উইলসন। বৃহস্পতিবার সকালে টুইট করে নিজেই এ কথা জানিয়েছেন এই অভিনেতা। তারা দু’জনেই এই মুহূর্তে এক ফিল্মের শুটিংয়ের জন্য অস্ট্রেলিয়ার রয়েছেন। সেখানেই তারা অসুস্থ হয়ে পড়েন। মেডিক্যাল টেস্টে দু’জনের শরীরেই করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব পাওয়া যায়। সূত্র : নিউ ইয়র্ক টাইমস।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত