প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বাংলাদেশ করোনা ভাইরাসের ঝুঁকিতে আছে, এ জন্য সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে, জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক

শাহীন খন্দকার : [২] স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ বলেন, করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে আমরা চারটি লেভেলে ভাগ করেছি। লেভেল- ১ কে অ্যালার্ট লেভেল বলছি। লেভেল-২ যখন কোনো করোনা ভাইরাস আক্রান্ত রোগী পাওয়া যাবে। তখন আমাদের কি করতে হবে। কোনো পরিকল্পনায় এগুতে হবে সেই বিষয়ে বিস্তারিত পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। লেভেল-৩ এ যদি করোনা ভাইরাস ব্যাপক আকারে দেশের ছড়িয়ে পড়ে তাহলে আমাদের কি করনীয়। লেবেল- ৪ এ সার্বিক পরিস্থিতি কীভাবে নিয়ন্ত্রণ করবো সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। বাংলা নিউজ

[৩] রোববার (৮ মার্চ) সকালে রাজধানীর মহাখালীতে ইন্টারন্যাশনাল সেন্টার ফর ডায়রিয়াল ডিজিজ রিসার্চ, বাংলাদেশের (আইসিডিডিআরবি) সাসাকাওয়া মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। করোনা ভাইরাস নিয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করবেন। কিছুক্ষণের মধ্যেই এ বৈঠক শুরু হবে।

[৪] আরও বলেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে যদি কোনো দেশ নিজ ইচ্ছায় তথ্য দেয় তখন তারা তথ্য আপডেট করে। আমাদের দেশে গণস্বাস্থ্য বিশ্ববিদ্যালয় একটি ওয়েবসাইট রয়েছে সেখানে প্রতিনিয়তই নতুন নতুন তথ্য সংযোজন করছে তারা। সবশেষ তথ্য অনুয়ায়ী বিশ্বের ১০২টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে করোনা ভাইরাস। এ ভাইরাসে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন এক লাখ চার হাজার ৯৪ জন মানুষ। এদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৬০ হাজার ১৯০ জন। আর মারা গেছেন তিন হাজার ৬০০ জন।

[৫] স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ বলেছেন, সাউথ এশিয়ান রিজিওনের মধ্যে বাংলাদেশ বাদে ১১টি দেশেই করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। আমাদের দেশে করোনা ভাইরাস আক্রান্ত কোনো রোগী নেই। তবে আমরা করোনা ভাইরাসের ঝুঁকিতে আছি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত