প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ধর্ম চাই, কিন্তু নারী বিদ্বেষের কোনো ওয়াজ চাই না, বললেন ইনু

সমীরণ রায় : [২] রোববার রাজধানীর ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে মুজিববর্ষে ” শেখ হাসিনার নির্দেশ, নারী-শিশু নির্যাতনে, রুখে দাঁড়াও বাংলাদেশ” শীর্ষক সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। সমাবেশের আয়োজন করে কেন্দ্রীয় ১৪ দল।

[৩] জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদ সভাপতি বলেন, রাজনৈতিক মোল্লারা যতদিন বাংলাদেশ সোচ্চার থাকবে, ততদিন দেশে নারী নির্যাতন শিশু নির্যাতন চলবে। নারী-শিশু ধর্ষণ দু-একটা বখাটে কাজ না। দুই একটা বখাটের ধ্বংস করলেই নারী-শিশু নির্যাতনের সমস্যার সমাধান হবে না। নারী ও শিশু নির্যাতনের ঘটনার সঙ্গে জড়িয়ে আছে রাজনৈতিক ও সামাজিক কারণ। যারা ৭১ সালে স্বাধীনতার বিরুদ্ধে ধর্ম এবং ইসলামকে দাঁড় করিয়ে নারী-শিশু ও বৃদ্ধ হত্যা করেছিল। সেই রাজাকার পাকিস্তানের দোসররা, জঙ্গিরা এবং জামায়াত ইসলামীরা। তারা বাংলাদেশ ধর্মপ্রচারের নামে বিভিন্ন ওয়াজে নারীর বিরুদ্ধে বিষোদগার, তেঁতুলের সঙ্গে তুলনা ও তেঁতুলতত্ত্ব দেয়।

[৪] তিনি বলেন, রাজাকার, জঙ্গি, জামায়াতী আর তেঁতুল তত্ত্বের মালিকদের নারীবিদ্বেষী ওয়াজের কারণেই নারী ও শিশু নির্যাতন হয়। তাই এদেরকে দমন করতে হবে। রাষ্ট্রের প্রশাসনের সাহায্য কামনা করছি। একই সঙ্গে সরকারের পক্ষ থেকে পরিস্কার নির্দেশ দেয়া হোক ডিসিদের কোনো জায়গায় নারী বিদ্বেষী ও নীতির বিরুদ্ধে কেনো ওয়াজেই আলোচনা হবে না। জনসংখ্যা নীতির বিরুদ্ধে কোনো আলোচনা হবে না। শেখ হাসিনা যেভাবে জঙ্গি দমন করেছেন, একইভাবে নারী নির্যাতনকারীকে ধ্বংস করে দিতে হবে।

[৫] ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিমের সভাপতিত্বে সমাবেশে আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্য আমির হোসেন আমু, সভাপতি মণ্ডলীর সদস্য মতিয়া চৌধুরী, জাতীয় পার্টির (জেপি) সাধারণ সম্পাদক শেখ শহিদুল ইসলাম, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া প্রমুখ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ