প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চীনে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত কমেছে, মৃত্যুর মিছিল থামছে না

যুগান্তর : নতুন করোনাভাইরাসে চীনে একদিনে নতুন রোগীর সংখ্যা অনেকটা কমে এলেও থামছে না মৃত্যুর মিছিল। বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত এ ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২১২৮ জনে, যাদের মধ্যে ১১ জন ছাড়া বাকি সবার মৃত্যু চীনে।

এছাড়া করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে জাপানে প্রমোদতরীর দুই যাত্রী, ইরানে দুই বৃদ্ধ এবং দক্ষিণ কোরিয়ায় এ প্রথম একজনের মৃত্যু হয়েছে।

এদিকে ভাইরাসটি শনাক্তের জন্য বাংলাদেশকে ৫০০ পিসিআর কিট দিয়েছে চীন। বৃহস্পতিবার সকালে এসব কিট বুঝে পেয়েছেন বলে জানিয়েছেন সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান আইইডিসিআরের পরিচালক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা।

তিনি বলেন, ‘তবে এটার পরীক্ষা পদ্ধতিসহ অন্যান্য বিষয় এখনও বিশ্লেষণ করিনি। এগুলো দিয়ে কতগুলো পরীক্ষা করা যাবে সেটাও এখনও জানি না।’

এদিন করোনাভাইরাস নিয়ে সর্বশেষ পরিস্থিতি তুলে ধরতে আইইডিসিআরের নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা বলেন, বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত ৭৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করে কারও শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া যায়নি। এদের মধ্যে চারজন চীনের নাগরিক।

কভিড-১৯ নামের এ রোগ নিয়ে আতঙ্কিত না হতে আবারও আহ্বান জানান ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা। তিনি বলেন, চীনে নতুন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বেশিরভাগ মানুষই সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে যাচ্ছেন। পাশাপাশি বাংলাদেশে এখনও এ ভাইরাসে আক্রান্ত কাউকে পাওয়া যায়নি। চীনে এখন পর্যন্ত যত মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন তার ৮০ ভাগই মৃদু ঝুঁকির। যাদের হাসপাতালে ভর্তি হওয়ারও প্রয়োজন পড়ে না। অনেকেই সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে যাচ্ছেন।

বাংলাদেশে এখনও উদ্বিগ্ন হওয়ার মতো পরিস্থিতি হয়নি জানিয়ে তিনি বলেন, এ কারণে করোনাভাইরাস নিয়ে অযথা আতঙ্কিত বা কোনো প্যানিকের মধ্যে না পড়ি সে বিষয়টা আমরা আশ্বস্ত করতে চাই।

তারপরও অতিরিক্ত সতর্কতা হিসেবে চীন বা সিঙ্গাপুর ফেরত লোকজনকে হাসপাতালে ভর্তি বা কোয়ারেন্টিনে রাখা হচ্ছে বলে জানান মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা। তিনি বলেন, চীন ফেরতদের হাসপাতালে নেয়া নিয়েও আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। যেহেতু চীন বা সিঙ্গাপুর ভ্রমণের ইতিহাস রয়েছে এবং সাধারণ সর্দি-জ্বরের সঙ্গে যেহেতু করোনাভাইরাসের লক্ষণগুলো মেলে, এ কারণে অতিরিক্ত সতর্কতা হিসেবে তাদের পরীক্ষা করি।

আশকোনা থেকে বাড়ি ফেরা ৩১২ জনের সবাই ভালো আছেন, তাদের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখা হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন আইইডিসিআর পরিচালক।

এদিকে সিঙ্গাপুরে করোনা আক্রান্ত ৫ বাংলাদেশির অবস্থা অপরিবর্তিত রয়েছে। এরমধ্যে একজনের অবস্থা এখনও সংকটাপন্ন। ১২ দিন ধরে সিঙ্গাপুরের ন্যাশনাল সেন্টার ফর ইনফেকশাস ডিজিজের (এনসিআইডি) নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে তিনি চিকিৎসাধীন। চীনের হুবেই প্রদেশ থেকে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার আগে ৩৯ বছর বয়সী এ বাংলাদেশি নাগরিকের ফুসফুসে জটিল প্রদাহ ছিল।

চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশনের তথ্য অনুযায়ী, বৃহস্পতিবার দেশটির মূল ভূখণ্ডে ৩৯৪ জনের শরীরে নতুন করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়েছে। আগের দিন এ সংখ্যা ছিল ১ হাজার ৭৪৯ জন। বৃহস্পতিবারই সবচেয়ে কম নতুন রোগী নতুন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। সব মিলিয়ে চীনে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭৪ হাজার ৫৭৬ জন। আর অন্তত ২৮টি দেশ ও অঞ্চলে এ ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ায় বিশ্বে আক্রান্তের সংখ্যা ৭৫ হাজার ছাড়িয়ে গেছে।

বুধবার চীনে ১১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে নতুন এ করোনাভাইরাসে, এর মধ্যে হুবেই প্রদেশেই মারা গেছেন ১০৮ জন। তাতে চীনের মূল ভূখণ্ডে নতুন করোনাভাইরাসে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াচ্ছে ২১১৮ জনে। চীনের মূল ভূখণ্ডের বাইরে এ পর্যন্ত ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে এ ভাইরাসে। তাদের মধ্যে জাপানে তিনজন, হংকং ও ইরানে দু’জন করে এবং ফিলিপিন্স, ফ্রান্স, তাইওয়ান ও দক্ষিণ কোরিয়ায় একজন করে আক্রান্তের মৃত্যু হয়েছে। দক্ষিণ কোরিয়ায় এ প্রথম এ ভাইরাসে মৃত্যু হল। দেশটির সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল এ মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে। এদিন দেশটিতে নতুন করে ৩১ জন করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। এ নিয়ে দেশটিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮২।

মধ্য চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে ২০১৯ সালের ৩১ ডিসেম্বর করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ শনাক্ত করা হয়। নিউমোনিয়ার মতো লক্ষণ নিয়ে নতুন এ রোগ ছড়াতে দেখে চীনা কর্তৃপক্ষ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে সতর্ক করে। এরপর ১১ জানুয়ারি প্রথম একজনের মৃত্যু হয়।

জাপানে প্রমোদতরীর দুই যাত্রীর মৃত্যু : জাপানের ইয়োকোহামা বন্দরে কোয়ারেন্টাইনে থাকা প্রমোদতরী প্রিন্সেস ডায়মন্ডের করোনাভাইরাস আক্রান্ত দুই যাত্রী মারা গেছেন। বৃহস্পতিবার জাপানের রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা এনএইচকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

জাহাজটি ৩ ফেব্রুয়ারি বন্দরে নোঙ্গরের পর থেকেই কোয়ারেন্টাইনে ছিল। এর ৩ হাজার ৭শ’ আরোহীর মধ্যে এ পর্যন্ত অন্তত ৬২১ জনের শরীরে করোনাভাইরাস ধরা পড়েছে। এনএইচকে জানিয়েছে, মৃতদের মধ্যে ৮৭ বছর বয়সী এক পুরুষ ও ৮৪ বছর বয়সী এক নারী রয়েছেন। তারা দু’জনই জাপানি নাগরিক।

ইরানে দু’জনের মৃত্যু : করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ইরানে দুই বয়স্ক লোক মারা গেছেন। দেশটির স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের বরাতে আলজাজিরা এ খবর দিয়েছে। বুধবারের এ মৃত্যুর মধ্য দিয়ে মধ্যপ্রাচ্যে এ ভাইরাসে প্রথম প্রাণহানির ঘটনা ঘটল।

ইরানের স্বাস্থ্যমন্ত্রীর উপদেষ্টা আলী রেজা ভাহাবজাদেহ বলেন, দক্ষিণ তেহরানের কুয়াম শহরে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দু’জন মারা গেছেন। তারা মারাত্মক ফুসফুস সংক্রমণে ভুগছিলেন।

বেনাপোল কাস্টমস কমিশনারের ফেসবুক স্ট্যাটাসে ‘গুজব’ : যশোর ব্যুরো জানায়, বেনাপোল কাস্টমস কমিশনার বেলাল চৌধুরীর বিরুদ্ধে ফেসবুকে স্ট্যাটাসের মাধ্যমে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্তের গুজব ছড়ানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বৃহস্পতিবার সকালে কলকাতা ফেরত বন্ধন এক্সপ্রেসের এক যাত্রীর শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে বলে দাবি করা হয় ওই ফেসবুক স্ট্যাটাসে। এতে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

দায়িত্বশীল সরকারি কর্মকর্তার ফেসবুক পেজে গুজব ছড়ানোয় বিব্রত জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। বিকালে নিজ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে যশোরের সিভিল সার্জন শেখ আবু শাহীন বলেন, এটি নিছকই গুজব।

এ ধরনের গুজবে আতঙ্কিত না হওয়ার জন্য সবাইকে অনুরোধ করছি। এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে কাস্টমস কমিশনার বেলাল চৌধুরী বলেন, সচেতনতার জন্যই প্রথমে করোনা রোগী শনাক্তের বিষয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছিলাম। পরে চিকিৎসক দল পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে নিশ্চিত হয়েছে ওই যাত্রীর শরীরে করোনাভাইরাস নেই। পরে আবার আপডেট স্ট্যাটাস দিয়েছি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত