প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

২ শতাংশ পরিশোধে নিয়মিতকরন সুবিধায় আংশিক কমছে খেলাপি ঋণ

শরীফ শাওন : গত বছরের শেষ ছয় মাসের হিসেবে রাষ্ট্রয়ত্ত ব্যাংকগুলোর খেলাপি ঋণ কমেছে ১০ হাজার ৪৩২ কোটি টাকা। জুনে ঋণের পরিমান ৫৩ হাজার ৭৪৫ কোটি টাকা থাকলেও ডিসেম্বরে কমে ৪৩ হাজার ৩১৩ কোটি টাকায় দাঁড়ায়। খেলাপি ঋণের শীর্ষে জনতা ব্যাংক। এর পরে ক্রমান্বয়ে রয়েছে সোনালী, বেসিক, অগ্রণী, রূপালী ও বিডিবিএল।

সংশ্লিষ্টরা জানান, সরকারিভাবে ঋণ অবলোপন ও খেলাপি ঋণের ২ শতাংশ নগদ জমা দিয়ে খেলাপি ঋণ নিয়মিতকরণের সুযোগ দিলেও এখনো আশানুরূপ সাড়া মেলেনি। তবে ব্যাংকগুলো খেলাপি ঋণ আদায়ে আগের চেয়ে অনেকটা সচেষ্ট। তারা আশা করছে খুব শিগগির খেলাপি ঋণ আদায়ে ইতিবাচক সাড়া মিলবে।

জনতা ব্যাংক: জুনে ব্যাংকটির খেলাপি ঋণের পরিমান২০ হাজার ৯৯৪ কেটি টাকা থেকে ডিসেম্বওে ১৪ হাজার ৪৫৩ কোটি টাকায় নেমে আসে। এই ব্যাংকের শীর্ষ ঋণ খেলাপির তালিকায় ‘অ্যনন ট্রেক্স’ নামের একটি গ্রুপের নাম রয়েছে।
সোনালী ব্যাংক: বিগত বছরের শেষ ৬ মাসে খেলাপি ঋণ কমেছে ১ হাজার ৯১২ কোটি টাকা। ডিসেম্বরে খেলাপি ঋনের স্থিতি দাঁড়ায় ১০ হাজার ৩৬২ কেটি টাকা।

বেসিক ব্যাংক: ছয় মাসে ১ হাজার ৬০৫ কোটি টাকা কমে গত ডিসেম্বরে খেলাপি ঋণের স্থিতি ছিল ৭ হাজার ৫০৮ কোটি টাকা। আব্দুল হাই বাচ্চু ব্যাংকটির চেয়ারম্যান হিসেবে থাকাকালে এ ঘাটতি দেখা দেয়।

অগ্রণী ব্যাংক : গত বছরের জুন শেষে ব্যাংকটিতে খেলাপি ঋণের স্থিতি ছিল ৬ হাজার ১৪৭ কোটি টাকা। ডিসেম্বর পর্যন্ত ছয় মাসে ঋণ কমেছে ১৪৭ কোটি টাকা।
রূপালী ব্যাংকে ছয় মাসে ১৫৪ কোটি টাকা ঋণ কমে ডিসেম্বরে স্থিতি দাঁড়ায় ৪ হাজার ২২৬ কোটি টাকা। এবং বিডিবিএল ব্যাংকে ১৩৭ কোটি টাক খেলাপি ঋণ কমে ডিসেম্বরে এর পরিমান হয় ৭৬৪ কোটি টাকা। সূত্র: রাইজিং বিডি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত