প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

যৌন হয়রানির দায়ে চাকরি হারাচ্ছেন হাজী দানেশের শিক্ষক

আমাদের সময় :দিনাজপুরের হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (হাবিপ্রবি) প্রাণরসায়ন ও অণুজীববিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক রমজান আলীকে স্থায়ীভাবে চাকরিচ্যুতির সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

ছাত্রীকে যৌন হয়রানি এবং গৃহকর্মীর সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্ক সৃষ্টির দায়ে রমজান আলীর বিরুদ্ধে আজ শনিবার বিশ্ববিদ্যালয়টির রিজেন্ট বোর্ডের ৪৯তম সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এ তথ্য জানান।

এর আগে একই অভিযোগে রমজান আলীকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ২০১৭ সালের ১৮ জুলাই বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে যৌন হয়রানির অভিযোগ দেন এক ছাত্রী। অভিযোগে বলা হয়, বাড়িতে স্ত্রীর অনুপস্থিতিতে শিক্ষক রমজান আলী ওই ছাত্রীকে বিভিন্ন অজুহাতে বাসায় যাওয়ার এবং হোটেলে থাকার চাপ দেন। এতে রাজি না হলে পরীক্ষায় ফেল করিয়ে দেওয়ার হুমকি দেন তিনি। ওই ছাত্রী লিখিত অভিযোগের পাশাপাশি মোবাইলে কথোপকথনের রেকর্ডও জমা দেন প্রশাসনের কাছে।

এ ছাড়া ২০১৮ সালের ১৬ জানুয়ারি রমজান আলীর স্ত্রী যৌতুক নেওয়া এবং ছাত্রীর সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্কের অভিযোগ দেন বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনে। এ ঘটনায় উচ্চ আদালতের নির্দেশনায় গঠিত কমিটি তদন্ত করে। তদন্তকালে কমিটির সদস্যরা ছাত্রী ও তার স্ত্রীর অভিযোগের সত্যতা পায়। এর বাইরে রমজান আলীর বিরুদ্ধে গৃহকর্মীর সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনেরও প্রমাণ পাওয়া যায়। পরে ২০১৮ সালের ২ জুলাই কমিটির সদস্যরা প্রতিবেদন জমা দিয়ে রমজান আলীকে চূড়ান্ত বরখাস্তের সুপারিশ করেন।

রমজান আলীকে চূড়ান্ত বরখাস্তের বিষয়ে মহিলা পরিষদের সভাপতি কানিজ রহমান বলেন, ‘রমজান আলীর মতো একজন শিক্ষককে বরখাস্তের মধ্য দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়টি কলঙ্কমুক্ত হলো।’

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত