প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

খালেদা জিয়ার মুক্তি নিয়ে বিএনপি নিজেই দ্বিধান্বিত, বললেন তথ্যমন্ত্রী

সমীরণ রায় : শনিবার রাজধানীর মোহাম্মদপুরে শরীরচর্চা কলেজ ময়দানে অগ্রণী ব্যাংকের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা উদ্বোধনীতে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, শেখ হাসিনা প্রতিহিংসার রাজনীতি করেন না, বরং বিএনপি করে।

২০০৪ সালে বিএনপির আমলে খালেদা জিয়ার সরকারের পৃষ্ঠপোষকতায়, তার পুত্র তারেক রহমানের পরিচালনায় ২১ শে আগস্ট গ্রেনেড হামলা চালিয়েছিলো শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশে। তারপরেও খালেদা জিয়ার দ্বিতীয় পুত্র মারা গেলে প্রধানমন্ত্রী তার বাড়ির দরজায় দশ মিনিট দাঁড়িয়ে ছিলেন। তিনি দরজা খোলেননি। এগুলো প্রধানমন্ত্রী মনে রাখেননি। তাকে বঙ্গবন্ধু মেডিকেলে রেখে সর্বোচ্চ স্বাস্থ্যসেবা দিতে সরকার আন্তরিকভাবে কাজ করে যাচ্ছে ।

তিনি বলেন, বিএনপি একদিকে বলছে আন্দোলনের মাধ্যমেই খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা হবে। অন্যদিকে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদককে ফোন করে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলাপ করতে চেয়েছে। তারা কি আন্দোলন থেকে সরে আসছে! আসলে কি চান, সেটা এখনো স্পষ্ট করতে পারেননি।

তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার পক্ষ থেকে প্যারোলের কোনো আবেদন করা হয়নি। তার পরিবারের বরাত দিয়ে এক ধরনের কথা, দলের পক্ষ থেকে আরেক ধরনের কথা বলা হচ্ছে। তিনি শুধুমাত্র প্যারোলে মুক্তির আবেদন করলেই সরকারের বিবেচনা করার সুযোগ থাকে। এছাড়া তাকে মুক্তি দেয়ার এখতিয়ার সরকারের নেই। বিএনপি নেতারা প্রতিদিন তার জামিন নিয়ে বলেন, সরকার নাকি বাধা দিচ্ছে। কিন্তু তিনি কোনো রাজনৈতিক বন্দী নন, দুর্নীতির দায়ে সাজা ভোগ করছেন। দেশে আইন ও আদালত স্বাধীন। সুতরাং তাকে জামিন পেতে হলে আদালতের মাধ্যমেই পেতে হবে।

এসময় অগ্রণী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ সামস-উল ইসলামসহ কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত