প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চট্টগ্রাম এখন পরিনত হয়েছে উত্তাপ আর উৎসবের নগরীতে

তিমির চক্রবর্ত্তী: ঢাকা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের পর চট্রগ্রাম সিটি নির্বাচনকে সামনে রেখে মেয়র প্রার্থী নিয়ে রয়েছে নানা জল্পনা-কল্পনা। সেই সাথে নগর জুড়ে বিভিন্ন মনোনয়ন প্রত্যাশীর নামে লাগানো হচ্ছে পোস্টার ও ব্যানার। সূত্র: সময় টিভি

নির্বাচনে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে দলীয় মনোনয়ন কে পাচ্ছে তা নিয়ে চলছে চুলচেরা বিশ্লেষণ। বর্তমান মেয়র আ জ ম নাছির বহাল থাকছেন, নাকি পরিবর্তন হচ্ছে? এ নিয়ে চলছে নানা জল্পনা-কল্পনা।

তবে অনেকের মতে একাধিক মনোনয়ন প্রত্যাশী থাকলেও আওয়ামী লীগের পক্ষে নমিনেশন পাওয়ার ক্ষেত্রে এগিয়ে আছেন বর্তমান মেয়র আ জ ম নাছির। অন্যদিকে বিএনপির পক্ষে প্রার্থী হিসেবে শোনা যাচ্ছে ডা. শাহাদাত হোসেনের নাম।

বর্তমান মেয়রের বাইরে মহানগর আ. লীগের সহ সভাপতি খোরশেদ আলম সুজন, সাবেক সিডিএ চেয়্যারম্যান আব্দুচ ছালামের নাম শোনা যাচ্ছে। সেই সাথে শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলের নামও উঠে এসেছে। তবে মনোনয়ন পেলে জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী বর্তমান সিটি মেয়র আ জ ম নাছির।

আর আসন্ন সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনকে সামনে রেখে সকল ধরনের প্রস্তুতি শুরু করেছে আঞ্চলিক নির্বাচন কমিশন কার্যালয়।
চট্টগ্রাম সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. মুনীর চৌধুরী বলেন, যেহেতু ইভিএমের নির্বাচন, তাই প্রতিটি বুথ ৪শ’ থেকে ৪২৫ এর মধ্যে রাখতে হয়। এ জন্য বুথ সংখ্যাও আমরা বাড়িয়েছি। আর নতুন যেগুলো কেন্দ্র করতে হয়েছে ভোটার সংখ্যা বৃদ্ধি করা জন্য। সেগুলো আমরা নির্ধারণ করেছি।
আগামী ১৬ ফেব্রুয়ারি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হবে। ২০১৫ সালের ২৮ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হয় চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত