প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রাশিয়ান কোম্পানি গাজপ্রম কি বাপেক্সের চেয়ে অধিক দক্ষতায়, কম ব্যয়ে গ্যাস উত্তোলন করতে পারে?

 

আনু মুহাম্মদ : মার্কিন বা কানাডীয় কোম্পানির মতো কোনো দুর্ঘটনা না ঘটিয়ে, পরিশ্রম করে জাতীয় সংস্থা বাপেক্সের মানুষেরা ভোলায় যে গ্যাসক্ষেত্র আবিষ্কার করেছিলেন, ফল পাবার সময় তা বিনা দরপত্রে তুলে দেওয়া হচ্ছে রাশিয়ান কোম্পানি গাজপ্রমের হাতে। কেন? তারা কি বাপেক্স-এর চাইতে অধিক দক্ষতায়, কম ব্যয়ে গ্যাস উত্তোলন করতে পারে? না, কোনো উদাহরণ নাই। তারা এর আগে কাজ করেছে, বাপেক্সের চাইতে দ্বিগুণ অর্থ খরচ করেও তারা কাজ সমাপ্ত করতে পারেনি, বরং গ্যাসক্ষেত্র ঝুঁকির মধ্যে ফেলেছে।

এবারের চুক্তিতে বাংলাদেশের অর্থ বেশি যাবে, বেশি দামে নিজেদের গ্যাস কিনতে হবে, গ্যাসক্ষেত্রও ঝুঁকির মধ্যে পড়বে। অথচ ভোলার এই গ্যাসক্ষেত্র থেকে যথাযথভাবে গ্যাস উত্তোলন করলে দক্ষিণাঞ্চলে গ্যাস চাহিদা মেটানো সম্ভব, চীন-ভারত-জাপানের কয়লা বিদ্যুতে দেশের সর্বনাশ না করে উপকূলীয় অঞ্চলে বিদ্যুৎও উৎপাদন সম্ভব। এরকম বেঈমানী সিদ্ধান্ত দিয়েই একের পর এক নিজেদের সম্পদ টাউট বাটপারদের হাতে তুলে দেওয়া হচ্ছে। আর এসব জাতীয় স্বার্থবিরোধী সিদ্ধান্তকে বৈধতা দেওয়ার জন্য বহুদিন থেকেই চলছে বাপেক্স-এর বিরুদ্ধে অপবাদ দেওয়া, আর ‘আমরা পারবো না, পারবো না’ করে জিগির তোলা। ক্ষমতার খুঁটি যদি বাঁধা থাকে নানা জায়গায়, যদি কমিশনভোগীরা দেশ চালায় তাহলেই কেবল এরকম সিদ্ধান্ত হতে পারে। ফেসবুক থেকে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত