প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বইমেলায় থাকবে চার স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা, বললেন ডিএমপি কমিশনার

সুজন কৈরী: বৃহস্পতিবার বিকেলে অমর একুশে বইমেলার নিরাপত্তা ব্যবস্থা পরিদর্শন শেষে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে অস্থায়ী পুলিশ কন্ট্রোল রুমের সামনে সংবাদ সম্মেলনে ডিএমপি কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম আরও বলেন, মেলাসহ আশপাশের সড়কে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তার জন্য সিসি ক্যামেরা বসানো হয়েছে।

বাংলা একাডেমিকে সঙ্গে নিয়ে ডিএমপি বইমেলায় নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা দিয়ে থাকে উল্লেখ করে কমিশনার বলেন, টিএসসি, দোয়েল চত্বর, শহীদ মিনার, নীলক্ষেত, শাহবাগ এলাকায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে। মেট্রোরেলের কাজ চলায় মেলায় আগতদের সুষ্ঠুভাবে চলাফেরা নিশ্চিতে একটু কষ্ট হবে।টিএসসি ও দোয়েল চত্বর মেলায় প্রবেশ করা যাবে। প্রত্যেক দর্শনার্থীকে আর্চওয়ে, মেটাল ডিটেক্টরের মাধ্যমে নারী ও পুরুষদের আলাদা ব্যবস্থায় তল্লাশি শেষে মেলা প্রাঙ্গণে প্রবেশ করতে হবে। পুরো বইমেলা এলাকা থাকবে সম্পূর্ণ সিসিটিভির আওতায়। মেলার চারপাশে থাকবে মোটরসাইকেলে পুলিশের টহল ব্যবস্থা। পোশাকে ও সাদা পোশাকে পর্যাপ্ত সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন থাকবে। আমরা আশা করি এই বইমেলাটি অত্যন্ত আনন্দমূখরভাবে সম্পন্ন করতে পারবো।

তিনি আরো বলেন, মেলা প্রাঙ্গণে ও তার আশপাশে কোনো ভাসমান দোকান বা হকার বসতে দেয়া হবে না। মেলা কর্তৃপক্ষের অনুমোদনকৃত স্থানেই শুধু খাবার স্টল থাকবে।

সাম্প্রদায়িক উস্কানি ও ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করে এমন বই নিয়ন্ত্রণে পুলিশি কাজের বিষয়ে কমিশনার বলেন, বিতর্কিত বই নিয়ে আমরা সতর্ক আছি। আমরা বাংলা একাডেমিকে অনুরোধ করেছি কোনো বিতর্কিত বই যেন মেলায় না আসে সেদিকে লক্ষ্য রাখতে।বই নিয়ন্ত্রণ অনেক কঠিন কাজ। প্রকাশক বইটি প্রকাশ করে বইমেলার স্টলে নিয়ে আসেন। প্রতিটি বই স্টলে আনার আগে বইগুলো বাংলা একাডেমি অথবা পুলিশ দিয়ে পড়িয়ে নিলে ভালো হতো। কোন বিতর্কিত লেখা যাতে না আসে সেজন্য আমরা প্রকাশকদের সঙ্গে কথা বলেছি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত