প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ঝিনাইদহ মহেশপুরে স্ত্রী কর্তৃক যুবকের পুরুষাঙ্গ কর্তনের অভিযোগ

যশোর প্রতিনিধি : ঝিনাইদহ মহেশপুরে স্ত্রী কর্তৃক সোহাগ মোল্লা (২৩) নামে এক যুবকের পুরুষাঙ্গ কর্তনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। পুলিশ এঘটনায় সোহাগের স্ত্রী শারমিন আক্তার শিলাকে আটক করেছে।

২৮ জানুয়ারি মঙ্গলবার দুপুরে ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার যাদবপুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটেছে। সোহাগকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

সোহাগ মোল্লা জানান, চার মাস আগে একই উপজেলার জাগুশা গ্রামের জসিম উদ্দিনের মেয়ে শারমিন আক্তার শিলার সাথে সোহাগের বিয়ে হয়। সোহাগের সাথে বিয়ের আগেও শিলার দুই বিয়ে ছিল। বিয়ের পরে তার আগের এক স্বামীর সাথে নিয়োমিত যোগযোগ রক্ষা করে চলত। যে কারণে শিলা সোহোগের সাথে শারিরীক সম্পর্ক স্থাপন করতে চাইত না। এ নিয়ে তাদের মধ্যে প্রায়ই গোলযোগ হতো। ২৮ জানুয়ারি মঙ্গলবার রাতেও তাদের মধ্যে ঝগড়া হয়। বুধবার ২৯ জানুয়ারি দুপুরে কাজ শেষে বাড়ি ফিরলে শিলা আমাকে খেতে দেয়। খাওয়ার পর বিছানায় গেলে অচেতন হয়ে পড়ি। হঠাৎ তীব্র যন্ত্রণায় চেতনা ফিরে পেয়ে নিজেকে হাত-পা বাধা অবস্থায় এবং পুরুষাঙ্গ দিয়ে রক্ত পড়তে দেখি। চিৎকারে বাড়ির লোকজন ছুটে গিয়ে আমাকে উদ্ধার করে মহেশপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। অবস্থার অবনতি হলে সেখান থেকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে আনা হয়।’

যশোর জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক কল্লোল কুমার সাহা বলেন, সোহাগের পুরুষাঙ্গের উপরি ভাগের অর্ধেক কেটে পড়ে গেছে। রক্তক্ষরণ অব্যাহত থাকায় তার অবস্থা আশংকাজনক।

এদিকে জানতে চাইলে মহেশপুর থানার ওসি মোর্শেদ হোসেন খান জানান, এ ঘটনায় সোহাগের স্ত্রী শিলাকে আটক করা হয়েছে। সোহাগের পরিবারকে থানায় লিখিত অভিযোগ দিতে বলা হয়েছে। সোহাগ ঝিনাইদহ জেলার মহেশপুর উপজেলার জাদবপুর গ্রামের শফি মোল্লার ছেলে । সম্পাদনা: তন্নীমা আক্তার

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত