প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কুবির মূল সনদে বিভাগের নামই ভুল!

ডেস্ক রিপোর্ট  : কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) অভিষেক সমাবর্তনে গ্র্যাজুয়েটদের দেওয়া মূল সনদপত্রে বানানে ভুল পাওয়া গেছে। একটি ব্যাচের সকল শিক্ষার্থীর বিভাগের নামের বানানে ও কারো হলের নামের বানানে ভুল পাওয়া গেছে। এমনকি একই হলের আবাসিক শিক্ষার্থীর সনদে হলের নামের বানান ভিন্ন ভিন্ন লেখা রয়েছে। এ নিয়ে শিক্ষার্থীরা প্রশাসনের দক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে ক্ষোপ প্রকাশ করেছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের অধীনে লোক প্রশাসন বিভাগের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের সকল শিক্ষার্থীদের বিভাগের নামে ভুল পাওয়া গেছে। বিভাগের নাম Public Administration এর যায়গায় Public Administration লেখা রয়েছে। ছিল।

এছাড়া ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের অন্তর্ভুক্ত একাউন্টিং এন্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস্ বিভাগের নামের বানানেও ভুল পাওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। বিভাগের এক শিক্ষার্থীর সাথে কথা বলে জানা গেছে, তাদের বিভাগের নামের বানানে ‘একাউন্টিং ও এন্ড’ শব্দ দু’টির মাঝে কোনো জায়গা না রেখে একসাথে লেখা হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে দেওয়া তথ্য অনুযায়ী নওয়াব ফয়জুন্নেছা চৌধুরাণী হলের ইংরেজি নামের বানান Nawab Foyzunnesa Chowdhurany Hall এর জায়গায় Nawab Faizunnissa Chaudhurani Hall লেখা হয়েছে।

আবার শহীদ ধীরেন্দনাথ দত্ত হলের ইংরেজি নামের বানান কোন কোন সনদে Shahid Dhirendronath Dutta Hall আবার কোন সনদে Shahid Dhirendronath Datta Hall লেখা হয়েছে।

এ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে শাওন মোস্তফা নামে এক শিক্ষার্থী বলেন, ‘একটা প্রশাসন কতটা অজ্ঞ হলে কারো মূল সনদে এরকম ভুল করতে পারে সেটা আমার জানা নেই। আমাদের ব্যাচের সবার সনদে এমন ভুল। সত্যিই এটি দুঃখজনক।’

আবাসিক হলের নামের বানান ভুল হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১২-১৩ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী
লিমা আক্তারের। তিনি বলেন, “মূল সনদে এমন ভুল আমাদের জন্য হতাশার। প্রশাসনকে অবশ্যই এর দায় নিতে হবে।”

এবিষয়ে সনদ তৈরি ও বিতরণ উপ-কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক মোহাম্মদ আমজাদ হোসেন সরকার বলেন, “প্রভিশনাল সার্টিফিকেটের (সাময়িক সনদপত্র) পত্রের তথ্য অনু্যায়ী মূল সনদ তৈরি করা হয়েছে। এক্ষেত্রে যার প্রভিশনাল (সাময়িক) সনদে যেমনটা লেখা ছিল সে অনুযায়ী মূল সনদ তৈরি করা হয়েছে।”

বিভাগের নামের বানানে ভুলের বিষয়ে বলেন, “প্রিন্টে (কারিগরিক ত্রুটি) ভুল হতে পারে। ভুল হওয়া সনদ ও সাময়িক সনদ নিয়ে আসলে আমরা এটা ঠিক করে দিব”

কমিটির সদস্য সচিব ও বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক আব্দুল্লাহ-আল-মামুন বলেন, “মূল সনদে ভুল হওয়ার বিষয়টি মাত্র জানতে পারলাম। ভুল হওয়ার বিষয়টি দুঃখজনক। আমরা অনেকবার যাচাই করেছি। সে সময় নাম ও রেজিস্ট্রেশন নাম্বারে গুরুত্ব দিয়েছি। আমরা রোববার বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব।

উল্লেখ্য, গত সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়টির ১ম সমাবর্তন অনুষ্ঠিত হয়। এতে ২ হাজার ৮৮৮ জন গ্র্যাজুয়েট অংশগ্রহণ করেন। যার মধ্যে স্নাতক ডিগ্রিধারী ১ হাজার ২২২ জন এবং স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রিধারী ১ হাজার ৬৬৫ জনকে ডিগ্রী প্রদান করেন রাষ্ট্রপতি।

সূত্র-ক্যাম্পাসলাইভ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত