প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নির্বাচনী গান, মাইকিংয়ের সঙ্গে পোস্টার আর ব্যানারে ছেয়ে যাওয়া ঢাকা এখন উৎসবের নগরী

ডেস্ক নিউজ : নির্বাচন ঘিরে পাড়া-মহল্লায় বিরাজ করছে উৎসবের আমেজ। নতুন করে ভোটের তারিখ ১ ফেব্রুয়ারি নির্ধারণ করায় প্রচারণা শেষ হচ্ছে বৃহস্পতিবার (৩০ জানুয়ারি) মধ্যরাতে। এদিন থেকে ৩ ফেব্রুয়ারি মধ্যরাত পর্যন্ত নির্বাচনি এলাকায় কোনও ব্যক্তি জনসভা বা কোনও অনুষ্ঠান আহ্বান এসবে যোগদান কিংবা কোনও মিছিল, শোভাযাত্রা করতে পারবেন না।

মঙ্গলবার (২৮ জানুয়ারি) ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, পাড়া-মহল্লা ছেয়ে গেছে নির্বাচনি পোস্টারে। মাঝে মাঝে ভোটের স্লোগানে উত্তাল হয়ে উঠছে বিভিন্ন এলাকা। শেষ মুহূর্তের প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করছেন মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীরা। কেউ ভোটারদের বাড়ি গিয়ে সমর্থন চাইছেন, কেউ নিজ এলাকায় কর্মী-সমর্থকদের মিছিল করে ভোট চাইছেন।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) এলাকার ৩১ নম্বর ওয়ার্ড ঘুরে দেখা গেছে, পোস্টারে ঢাকা পড়েছে পুরো এলাকা। তবে এই ওয়ার্ডে রিকশায় মাইক লাগিয়ে ভোট চাওয়ার বিষয়টি চোখে পড়ার মতো। ওয়ার্ডটিতে কাউন্সিলর পদে ৯ জন প্রতিদ্বন্দিতা করছেন। এর মধ্যে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী শঙ্কার কথা বললেও স্বতন্ত্রসহ অন্য প্রার্থীরা বললেন, পরিবেশ ভালোই আছে।
৩১ নম্বর ওয়ার্ডের সাধারণ আসনে কাউন্সিলর প্রার্থী ডেইজী সারোয়ার বলেন, আমার প্রচারণা চলছে। ভোটারদের বাড়ি বাড়ি যাচ্ছি আমি উন্নয়নের কথা তুলে ধরে ভোট চাচ্ছি। কিছু সমস্যা তো আছেই। প্রতিপক্ষের হুমকি-ধমকি, ক্যাম্প ভেঙে দেয়া, পোস্টার ছিঁড়ে ফেলা। নির্বাচনের দিন এসব ঘটনা আরও বেশি হওয়ার আশঙ্কা করছেন তিনি।

একই ওয়ার্ডের স্বতন্ত্র প্রার্থী ফরিদ উদ্দিন ফরহাদের বলেন, পরিবেশ ভালো আছে। আগের চেয়ে অন্তত ভালো আছে। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি) এলাকাতেও নির্বাচন ঘিরে উৎসবের আমেজ। পোস্টারে যেমন ছেয়ে গেছে বিভিন্ন এলাকা, তেমনি ব্যস্ততা দেখা গেলো নির্বাচনি ক্যাম্প তৈরিতে। আমি আজ দিনভর গণসংযোগ করেছি।

মো. মাহবুবুর রহমান মাহবুব ১৭ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী বললেন, নির্বাচনের জন্য সুন্দর পরিবেশ আছে। ভোটাররাও তাদের উচ্ছাস প্রকাশ করছেন, আমাদের সঙ্গে আছেন বলে জানিয়েছেন তারা।

১৭ নম্বর ওয়ার্ডের একজন ভোটার বলেন,নির্বাচনের পরিবেশটা উৎসবমুখরই হওয়া উচিত। তবে কিছু অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার জন্য ভোটারদের মধ্যে শঙ্কা বাড়ে। প্রার্থীদের প্রচারণার সময় কিছুটা সহনীয় হওয়ার পরামর্শ দেন তিনি।

ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশনে ভোটার সংখ্যা সাড়ে ৫৪ লাখ। উত্তর সিটিতে ভোটার সংখ্যা ৩০ লাখ ১০ হাজার ২৭৩ এবং দক্ষিণ সিটিতে ২৪ লাখ ৫৩ হাজার ১৯৪ জন। সাধারণ ওয়ার্ডে আছে ৫৪টি,সংরক্ষিত ওয়ার্ড ১৮টি এবং দক্ষিণে সাধারণ ওয়ার্ড ৭৫টি, সংরক্ষিত ওয়ার্ড ২৫টি। উত্তর সিটিতে সাধারণ আসনের কাউন্সিলর প্রার্থী ২৫১ জন, সংরক্ষিত আসনে কাউন্সিলর প্রার্থী ৭৭ জন। দক্ষিণ সিটিতে সাধারণ আসনের কাউন্সিলর প্রার্থী ৩২৬ জন, সংরক্ষিত আসনের প্রার্থী ৮২ জন। অনুলিখন : আরিফ হোসেন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত