প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সাইবার আক্রমণ ঠেকাতে নিরাপত্তা নির্দেশিকা জারি

বাংলা ট্রিবিউন : সাইবার আক্রমণ ঠেকাতে সরকারি সব ধরনের ডিজিটাল ডিভাইস ও তথ্য সংরক্ষণে সাইবার নিরাপত্তা নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে। মঙ্গলবার (২৮ জানুয়ারি) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে ‘ডিজিটাল ডিভাইস, ইন্টারনেট এবং তথ্য রক্ষণাবেক্ষণ ও নিরাপত্তা নির্দেশিকা-২০২০’ নির্দেশিকাটি জারি করা হয়।

নির্দেশিকায় ডিজিটাল ডিভাইস সুরক্ষা,সফটওয়ার নিরাপত্তা,সব ক্ষেত্রে পাসওয়ার্ড ব্যবস্থাপনা, লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্ক সুরক্ষা,ইন্টারনেট ব্যবস্থাপনা,ই-মেইল ব্যবস্থাপনা,সার্ভার কক্ষ সুরক্ষা ও সার্ভার সুরক্ষায় করণীয় সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরা হয়েছে।

এছাড়া সামাজিক যোগযোগ মাধ্যম সুরক্ষায়,ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা,ঝুঁকি বিশ্লেষণ, আকস্মিক দুর্ঘটনা ব্যবস্থাপনা, তথ্য ব্যবস্থাপনা ও নিরীক্ষা এবং পরিদর্শনের বিষয়ে বিস্তারিত সতর্কতা তুলে ধরা হয়।

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারনির্দেশকায় বলা হয়,নিরাপদ ইন্টারনেট ব্রাউজিংয়ের কলাকৌশল না জেনে ইন্টারনেট ব্যবহার করার ফলে সম্প্রতি সরকারি দফতরগুলোতে ব্যবহার করা অনলাইন সিস্টেম, ডিজিটাল ডিভাইস ও এতে সংরক্ষিত গুরুত্বপূর্ণ তথ্যগুলো বিভিন্ন ধরনের সাইবার আক্রমণের শিকার হচ্ছে। এই লক্ষ্যে সব সরকারি প্রতিষ্ঠানের ডিজিটাল ডিভাইস ও তথ্য সুষ্ঠুভাবে সংরক্ষণসহ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিতে ‘ডিজিটাল ডিভাইস, ইন্টারনেট এবং তথ্য রক্ষণাবেক্ষণ ও নিরাপত্তা নির্দেশিকা-২০২০’ প্রণয়ন করা হলো।
এই নির্দেশিকা অনুসরণের মাধ্যমে ডিজিটাল ডিভাইস, ইন্টারনেট ও তথ্য রক্ষণাবেক্ষণে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারীরা অধিকতর দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করবে বলে উল্লেখ করা হয়।
নির্দেশিকায় ডিজিটাল তথ্য বলতে টেক্সট, ইমেজ, অডিও বা ভিডিও আকারে প্রস্তুত তথ্য, জ্ঞান, ঘটনা, ধারণা বা নির্দেশাবলি যা কম্পিউটার প্রিন্ট আউট, ম্যাগনেটিক বা অপটিক্যাল স্টোরেজ মিডিয়া, পাঞ্চ টেপসহ যে কোনও আকার বিন্যাসে কম্পিউটার সিস্টেম অথবা কম্পিউটার নেটওয়ার্কে প্রক্রিয়াজাত করা হয়েছে,হচ্ছে বা হবে অথবা অভ্যন্তরীণভাবে যা কোনও কম্পিউটার স্মৃতি সংরক্ষণকে বোঝানো হয়েছে।

ডিজিটাল ডিভাইস বলতে কোনও ইলেট্রনিক, ডিজিটাল, ম্যাগনেটিক বা অপটিক্যাল বা তথ্য প্রক্রিয়াজাত যন্ত্র বা সিস্টেম যা ইলেট্রনিক ডিজিটাল, ম্যাগনেটিক বা অপটিক্যাল আমপালস ব্যবহার করে যৌক্তিক,গাণিতিক এবং স্মৃতি বিষয়ক কার্যক্রম সম্পন্ন করে অথবা যোগাযোগ ইত্যাদি কার্যক্রম সম্পন্ন করে তা বোঝানো হয়েছে।

তথ্য নিরাপত্তা নিরীক্ষা বলতে তথ্য যথাযথভাবে সংরক্ষণ করা হয়েছে কিনা তা পর্যবেক্ষণ ও মূল্যায়ন বোঝানো হয়েছে।

এই নির্দেশিকার উদ্দেশ্য হচ্ছে ডিজিটাল তথ্য সম্পর্কে ধারণা,সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধি,ডিজিটাল ডিভাইস,সফটওয়ার ও নেটওয়ার্ক যথাযথভাবে পরিচালনা,সংরক্ষণ ও নিরাপদ রাখা এবং ইন্টারনেট, ওয়েবসাইট ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারে সচেতনতা বৃদ্ধি করা।

সরকারি বিধিবিধানের আলোকে তথ্যের গোপনীয়তা, প্রয়োজনীয়তা, অগ্রাধিকার ইত্যাদি তথ্য শ্রেণিকরণ নিশ্চিত করারও নির্দেশনা দেওয়া হয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত