প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

তিন হাজার বছরের পুরোনো মিশরীয় মমিকে দিয়ে কৃত্রিমভাবে কথা বলালেন বিজ্ঞানীরা

মশিউর অর্ণব : মিশরীয় একজন পুরোহিতের আকাঙ্ক্ষা ছিল মৃত্যুর পরের জীবনের, তিন হাজার বছর পরে কৃত্রিমভাবে ‘ভোকাল কর্ড’ বসিয়ে তার কণ্ঠে স্বর তৈরি করে সেটিই পূরণ করলেন বিজ্ঞানীরা। মমি করে রাখা ওই পুরোহিত খ্রিস্টপূর্ব ১০৯৯ থেকে ১০৬৯ সময়ের মধ্যে ফারাও রামেসেস ইলেভেনের রাজত্বের সময়কার ছিলেন। বিবিসি

‘নেছায়মুন’ নামে ওই পুরোহিতের কণ্ঠ থেকে অনেকটা স্বরবর্ণের মতো শব্দ বের করা হয়েছে। নেছায়মুনের কণ্ঠনালীর অনুসরণে তারা ‘থ্রিডি প্রিন্টিং’ ব্যবহার করে বাকযন্ত্র তৈরি করেছেন। সঠিক মাত্রা তৈরি করার জন্য মমিটির গলার জায়গাটি স্ক্যান করা হয়েছিল। কণ্ঠনালীর ভেতর কৃত্রিম বাকযন্ত্র ব্যবহার করে তারা নেছায়মুনের কণ্ঠের অনুকরণে একটি স্বরধ্বনি তৈরি করতে সক্ষম হন।

কৃত্রিম যন্ত্রপাতি ব্যবহার করে মৃত কোন ব্যক্তির কণ্ঠস্বর সফলভাবে পুনরায় তৈরির করার ঘটনা এটিই প্রথম। বিজ্ঞানীরা আশা করছেন, ভবিষ্যতে কম্পিউটার মডেল ব্যবহার করে তারা নেছায়মুনের কণ্ঠে পুরো একটি বাক্য তৈরি করতে পারবেন। রয়্যাল হলোওয়ে, ইউনিভার্সিটি অফ লন্ডন, ইউনিভার্সিটি অফ ইয়র্ক এবং লিডস মিউজিয়ামের বিশেষজ্ঞদের সমন্বয়ে ওই গবেষণাটি সম্পন্ন হয়।

নেছায়মুনের ক্ষেত্রে তার মমি করা শরীরটি ভালোভাবে সংরক্ষিত হয়েছিল। গবেষক দলটি কাজ শুরু করার আগে একটি সিটি স্ক্যান করে নিশ্চিত হয়ে নিয়েছিল, এরপরে একটি কৃত্রিম বাকযন্ত্রের শব্দ ব্যবহার করে তার কণ্ঠ বের করা হয়। ইউনিভার্সিটি অফ ইয়র্কের প্রত্নবিদ্যার অধ্যাপক বলেন, ‘এটা তার কফিনে লেখা রয়েছে, যা তিনি চাইতেন। একরকমভাবে, আমরা সেই ইচ্ছাটিকে সত্যি করতে চেষ্টা করেছি।’

সর্বাধিক পঠিত