প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

এফডিসিতে দাঁড়িয়ে রোজিনার আফসোস

ইমরুল শাহেদ : রোববার দুপুর প্রায় সাড়ে বারোটার দিকে সাত ও আট দশকের খ্যাতিমান অভিনেত্রী রোজিনার গাড়িটি এসে থামে এফডিসির পরিচালক ও শিল্পী সমিতির মাঝামাঝি স্থানটিতে। গাড়ি থেকে নেমেই দেখা হয়ে গেল এ রিপোর্টারের সঙ্গে। স্বভাবসুলভ মুচকি হেসে কুশলাদি জানার পর প্রসঙ্গ বদলে বলেন, ‘এফডিসিতে এলে মনটা খুব খারাপ হয়ে যায়। ভবনগুলোর চুনকাম খসে পড়ছে। দেখার কেউ নেই। খুব আফসোস লাগে – এখান থেকেই তো জীবনটাকে গড়ে তুলেছি। এই ভবনগুলোর মধ্যে আমাদের অস্তিত্ব বিদ্যমান।’

তিনি বলেন, ‘এফডিসি আছে। চলচ্চিত্রের কাজ নেই। বিভিন্ন টিভি চ্যানেল ফ্লোরগুলো ভাড়া নিয়ে রেখে দিয়েছে। অথচ এক সময়ে আমরা রাতদিন এখানে কাজ করেছি। এক ফ্লোর থেকে আরেক ফ্লোরে ছুটে গেছি। সেই উজ্জীবিত ভাবটি এখন কোথায় হারিয়ে গেল। এফডিসিকে আমার কাছে মরামরা মনে হয়।’

রোজিনা বলেন, ‘এমনটাতো হওয়ার কথা ছিল না। চলচ্চিত্রের সেই সোনালি সময় ফিরিয়ে আনার জন্য কারো চেষ্টাও নেই।’ নিজের কর্মকাণ্ড নিয়ে কথা বলতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘আমার এক পা থাকে লণ্ডন, আরেক পা ঢাকা। এবারই একটু বেশি দিন আছি দেশে। এর মধ্যে আমি কিছু কাজ করেছি চ্যানেল আইয়ের জন্য। এখন আর করছি না। আশা আছে ছবিই বানাবো। শিল্পচেতনা নির্ভর চলচ্চিত্র নির্মাণ করতে চাই।’

এখন তিনি দেশের বাড়িতে একটি মসজিদ নির্মাণ করছেন। মসজিদটিতে ঢালাইয়ের কাজ চলছে। শিগগিরই তিনি বাড়ি গিয়ে সব ঠিকঠাক করে নেবেন। কথার মাঝখানেই এলেন নায়ক রুবেল। এরপর তারা চলে যান শিল্পী সমিতির কার্যালয়ে। সেখানে আরও কয়েকজন শিল্পী অপেক্ষা করছেন। এখান থেকে তারা বের হবেন ঢাকা উত্তর মেয়র প্রার্থির নির্বাচনি প্রচারণায়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত