প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শেরপুরে দুইজন শিক্ষক দিয়ে চলছে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়

তপু সরকার, শেরপুর প্রতিনিধি : জেলার নালিতাবাড়ী উপজেলার পৌরসভার খালভাংগা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়টি চলছে মাত্র দুইজন শিক্ষক দিয়ে। এলাকাবাসী ও অভিবাবকদের কাছে থেকে জানা যায় স্কুলটিতে নিয়োমিত ক্লাস না হওয়ায় ফলাফল বিপর্যয়ের দিকে যাচ্ছে।

১৯৮৬ সালে খালভাংগা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি জাতীয় করণ হয় এবং বর্তমানে প্রায় ২০০ শিক্ষার্থীর জন্য পাঁচ জন শিক্ষক থাকলেও প্রধান শিক্ষক চৈতন্য পাল গত বছরের ১০ অক্টোবর থেকে কোনো কারণ উল্লেখ্য না করে অনুপস্থিত রয়েছেন।

সহকারী শিক্ষক শারনিন আক্তার এ বছরের ১৬ জানুয়ারি থেকে মাতৃত্বকালিন ছুটিতে রয়েছেন। প্রধান শিক্ষকের দায়িত্বে থাকা মোশারফ হোসেন গত (১৭ জানুয়ারি) থেকে আইসিটি প্রশিক্ষণের জন্য জেলা সদর শেরপুরে আছেন।

রোববার (১৯ জানুয়ারি) বেলা ১১টায় ওই বিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা যায়, দুই শিফটের এই বিদ্যালয়ে শিশু ও প্রথম শ্রেণির দুই ক্লাশ একই কক্ষে একজন শিক্ষক পড়াচ্ছেন। দ্বিতীয় শ্রেণিতে কোনো শিক্ষক না থাকায় হই হোল্লর করছে তারা। আর একজন শিক্ষক পঞ্চম শ্রেণিতে ক্লাস নিচ্ছেন। অর্থাৎ চারটি শ্রেণি কক্ষের জন্য শিক্ষক রয়েছেন মাত্র দুই জন।

সহকারী শিক্ষিকা বকুল রানী পাল বলেন, শিক্ষক সংকটে দুই শেণির ক্লাশ এক সাথে নিতে হয়। তা না হলে শিক্ষার্থীরা গোলযোগ করে ক্লাস নেওয়া যায়না।

আরেক শিক্ষিকা জাহানারা খাতুন বলেন, বিরতিহিন ৬ টি ক্লাস নিতে হয় যা খুবই কস্টকর। ক্লাস ছাড়াও অফিসিয়াল অন্য কাজতো থাকেই।

বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি, নালিতাবাড়ী পৌরসভার কাউন্সিলর ও প্যানেল মেয়র সুরুজ্জামান বলেন, প্রধান শিক্ষক কাউকে না বলে বিদেশ চলে গেছেন। একজন রয়েছেন মাতৃত্বকালিন ছুটিতে। আমি বারবার শিক্ষা কর্মকর্তাদের শিক্ষক বাড়ানোর জন্য অবগত করেছি। কিন্তু কোনো কাজ হচ্ছেনা। ফলে সরকারের অতি গুরুত্বপূর্ণ সার্বজনিন প্রাথমিক শিক্ষা ব্যাবস্থা বেহত হচ্ছে। সম্পাদনা: জেরিন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত