প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

৮৮ বছর বয়সেও বয়স্ক ভাতা মিলেনি শেরপুরের আবেদ আলীর

তপু সরকার হারুন: মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘুরলেও মেলেনি বৃদ্ধ আবেদ আলীর বয়স্ক ভাতার কার্ড। আবেদ আলী শেরপুরের শ্রীবরদী উপজেলার গোশাইপুর ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের মৃত তমির আলীর ছেলে। সহায় সম্পত্তি বলতে এক চিলতে পৈত্রিক ভিটেতে ঘর তৈরি করে কোনোরকম মাথা গোজার ঠাঁই করে নিয়েছেন বৃদ্ধ আবেদ আলী । সেখানেই তিনি স্ত্রী সন্তান নিয়ে বসবাস করছেন ।

শরীরে শক্তি না থাকায় তিনি লাঠিতে ভর করে মানুষের দুয়ারে দুয়ারে ভিক্ষাবৃত্তি করে স্ত্রী, কন্যা, নাতি-নাতনিসহ মানবেতর জীবন যাপন করছেন। ব্যাক্তিগত জীবনে তিনি ৩ মেয়ে সন্তানের জনক। মেয়েদের বিয়ে দিয়েছেন। দুই মেয়ে স্বামীর সংসারেই থাকেন নিজেদের মত করে। তবে ছোট মেয়ে মালেহার স্বামী মারা গেছে কয়েক বছর আগে।

স্বামী মারা যাওয়ার পর থেকে দুই মেয়ে ও এক ছেলে নিয়ে বাবা আবেদ আলীর সংসারেই থাকেন। এ যেন মরার ওপর খারার ঘা। বৃদ্ধ আবেদ আলী বলেন, আমার একটা বয়স্ক ভাতার কার্ড খুবই প্রয়োজন। বয়স্ক ভাতার কার্ড হলে অনেক উপকার হবে।

এব্যাপারে গোশাইপুর ইউপি চেয়ারম্যান এস.এম যোবায়ের বলেন, আমার কাছে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নিয়ে আসলে ওই বৃদ্ধের বয়স্ক ভাতার কার্ড করে দেয়া হবে। সম্পাদনা : মুরাদ হাসান

সর্বাধিক পঠিত