প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় পরাশক্তিগুলোর প্রতিদ্বন্দ্বিতাই সবচেয়ে বড় হুমকি

নূর মাজিদ: সুইজারল্যান্ডের ডাভোসে আগামী সোমবার শুরু হতে চলেছে ডব্লিউইএফ ফোরামের চলতি বছরের প্রথম সম্মেলন। এই সম্মেলনে যোগ দিতে পুরো বিশ্ব থেকেই এখন শীর্ষ ব্যবসায়ী এবং রাজনীতিবিদেরা আসছেন। এর আগেই গত বুধবার বৈশ্বিক ঝুঁকি নিরূপণ সংক্রান্ত প্রতিবেদনটি প্রকাশ করা হয়। ঐ

প্রতিবেদনটি বলছে, জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় বিশ্ব নেতা এবং ব্যবসায়ীদের মাঝে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক থাকা আবশ্যক। অন্য যে কোনো সময়ের চাইতে বর্তমান প্রেক্ষাপটে এর গুরুত্ব সবচেয়ে বেশি। আর এই সহযোগিতা না থাকলে জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলা করা অসম্ভব হয়ে পড়বে। পরাশক্তিগুলোর পরস্পরের স্বার্থ বিরোধিতার প্রক্রিয়া এইক্ষেত্রে বৈশ্বিক সৌহার্দ্যের পরিবেশ নষ্ট করে, অসহযোগীতার আবহ তৈরি করছে বলেই অভিযোগ ডব্লিউইএফ বিশেষজ্ঞদের। খবর : সিএনবিসি।

এদিকে আগামী সোমবারের বৈঠকে জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলার আলোচনা প্রাধান্য পাবে। এই প্রসঙ্গে ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের প্রেসিডেন্ট এম্বোর্জ ব্রেন্ডে বলেন, ‘(বিশ্বনেতাদের) বর্তমানে পদক্ষেপ নেয়ার প্রাসঙ্গিকতা সবচেয়ে বেশি। দেরি হয়ে গেলে তার জন্য চড়া মূল্য দিতে হবে।’

জাতিসংঘ জলবায়ু পরিবর্তনের প্রক্রিয়াকে মানবজাতির জন্য সবচেয়ে বড় দুর্যোগ হিসেবে চিহ্নিত করেছে। এই পরিবর্তন ঠেকাতে বর্তমান যুগকেই পদক্ষেপ নেয়ার সবচেয়ে কার্যকর মুহূর্তে রূপ দেয়ার আহব্বান জানিয়েছে রাষ্ট্রপুঞ্জটি।

বুধবার লন্ডনে গ্লোবাল রিস্কস রিপোর্ট-২০২০ প্রকাশকালে ডব্লিউইএফ-এর ভূরাজনীতি এবং আঞ্চলিক অধ্যয়ন বিষয়ক বিভাগের সহকারি প্রধান মিরেক ডুসেকও হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন। ডুসেক বলেন, ‘জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় একটি অস্থিতিশীল বিশ্ব অতি প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার পথে বৃহত্তর হুমকি হিসেবে কাজ করতে পারে। বিবাদমান পরাশক্তি কেন্দ্রিক একটি প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক বিশ্ব ব্যবস্থায় সকল রাষ্ট্রই নির্দিষ্ট একটি পক্ষকে সমর্থন করবে। তাই পুরো বিশ্বের জন্য হুমকিগুলোকে বৈশ্বিক দৃষ্টিকোণ থেকে দেখার অবকাশ হ্রাস পাবে।’

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত