প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পাম অয়েল আমদানি নিষিদ্ধের ঘটনায় ভারতের সঙ্গে সমঝোতার আলোচনা শুরু করেছে মালয়েশিয়া

সাইফুর রহমান : বৃহস্পতিবার কুয়ালালামপুরে দেয়া এক বিবৃতিতে এই তথ্য নিশ্চিত করেন মালয়েশিয়া সরকারের একজন মন্ত্রী। সম্প্রতি ভারতের নাগরিকত্ব আইন এবং নাগরিকপঞ্জি নিয়ে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদের মন্তব্যের জেরে দেশটি থেকে পামঅয়েল আমদানি নিষিদ্ধ করে বিশ্বের সবচেয়ে বড় ভোজ্যতেল আমদানিকারক দেশ ভারত। ইয়ন, ইন্ডিয়া টুডে, টাইমস অব ইন্ডিয়া

সূত্রের বরাত দিয়ে বুধবার রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, নয়াদিল্লি দেশটি থেকে পেট্রোলিয়াম জাতীয় পদার্থ, অ্যালুমিনিয়াম ইনগটস, তরল প্রাকৃতিক গ্যাস, মাইক্রোপ্রসেসর এবং কম্পিউটার যন্ত্রাংশসহ আরও বেশকিছু পণ্য আমদানি নিষিদ্ধ করতে পারে। এরপর নড়েচড়ে বসে মালয়েশিয়া।

তবে বৃহস্পতিবার ভারতের বাণিজ্যমন্ত্রী পীযূষ গয়াল দাবি করেন, তার সরকার মালয়েশিয়া এবং তুরস্ক থেকে কোনও পণ্য আমদানিতে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেনি এবং সরকারের তেমন পরিকল্পনাও নেই। কিন্তু পামঅয়েল রপ্তানি প্রক্রিয়ার দেখভাল করা মালয়েশিয়ার শিল্প-উপমন্ত্রী তেরেসা কোক এক সম্মেলনে জানান, চলতি বছরে ভারতসহ বিশ্বের বড় বাজারগুলোতে তারা মরাত্মক চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছেন।

উল্লেখ্য,২০১৯ সালে ভারত মালয়েশিয়া থেকে ৪৪ লাখ টন পামঅয়েল আমদানি করেছে কিন্তু নিষেধাজ্ঞার ফলে ২০২০ সালে তা ১০ লাখ টনেরও নিচে নেমে আসতে পারে বলে আশঙ্কা করছে মালয়েশিয়া। ক্ষয়ক্ষতি পুষিয়ে নিতে যদিও তারা নতুন বাজার খুঁজতে শুরু করেছে। আবার চীন-মার্কিন বাণিজ্য চুক্তি স্বাক্ষরিত হওয়ার পর নতুন করে দুশ্চিন্তায় পড়েছে দেশটি। কারণ এর ফলে চীন মালয়েশিয়ার পামঅয়েলের পরিবর্তে মার্কিন সয়াবিন আমদানির দিকে ঝুঁকতে পারে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত