প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

এম এ হালিম,সাভার : সাভারে বকেয়া বেতন পরিশোধের দাবিতে কারখানায় ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করেছে কর্তৃপক্ষ। শুক্রবার সকালে বহিরাগত চার যুবককে প্রধান আসামি করে অজ্ঞাত পরিচয় ৬০-৭০ জনের বিরুদ্ধে সাভার মডেল থানায় মামলাটি দায়ের করেন ক্ষতিগ্রস্ত রাকেফ এ্যাপারেলস কারখানার উপ-মহা ব্যবস্থাপক শাকিল মাহমুদ।

এরই মধ্যে পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে বহিরাগত চার যুবককে গ্রেপ্তার করেছে। গ্রেপ্তারকৃতরা হলো- ঠাকুরগাঁওয়ের রাসেল (১৮), লালমনিরহাটের ইয়াছিন(২১), ফরিদপুরের সিয়াম (১৬) ও সৈয়দপুরের মিলন (২২)।

মামলার বাদি রাকেফ এ্যাপারেলস কারখানার উপ-মহাব্যবস্থাপক শাকিল মাহমুদ বলেন, বকেয়া বেতনের দাবিতে শ্রমিকরা আন্দোলন করে কাখানায় ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটনায়। এতে আমাদের কারখানার মূল ফটক,ভিতরের বিভিন্ন অফিসের গ্লাস, আসবাবপত্র, কম্পিউটার ও মেশিনারীজসহ প্রায় তিন কোটি টাকা মূল্যের মালামাল লুটপাট করে নিয়ে যায়।

এ ঘটনায় কারখানার মালিক-শ্রমিকসহ সকলের মাঝে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে। তিনি আরও বলেন, আমাদের কারখানার প্রায় তিন হাজার শ্রমিকের এক মাসের বেতন দেয়ার কথা ছিলো বৃহস্পতিবার। কিন্তু ব্যাংকের জটিলতার কারনে আমরা বেতন দিতে না পারায় শ্রমিকরা ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে। পরে বহিরাগত লোকজন শ্রমিক অসন্তোষের সুযোগ নিয়ে কারখানায় ভাংচুর ওলুটপাটের ঘটনা ঘটায়।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সাভার মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই)এনামুল হক বলেন, পোশাক কারখানায় ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। এছাড়া ভাংচুরের সময় আটক চার বহিরাগত যুবককে মামলায় প্রধান আসামি করা হয়েছে। এঘটনায় কারখানাটির সিসিটিভি ফুটেজ দেখে হামলা ও ভাংচুরের ঘটনায় জড়িতদের সনাক্ত ও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

উল্লেখ্য, সাভারের তেঁতুলঝোড়া এলাকায় অবস্থিত রাকেফ এ্যাপারেলস কারখানার প্রায় তিন হাজার শ্রমিক বকেয়া বেতনের দাবিতে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কারখানার ভিতরে বিক্ষোভ শুরু করে।

একপর্যায়ে রাত ৭টার দিকে তারা হেমায়েতপুর-সিংগাইর সড়কে টায়ার জ্বালিয়ে অবরোধ করে রাখে। এসময় তারা বেশকিছু যানবাহনসহ কারখানার ভিতরে ভাংচুর ও লুটপাট চালায়। এসময় দুর্বৃওরা ওই কারখানা থেকে ল্যাপটপ, কম্পিউটার ও প্রস্তুত করা প্যান্টসহ বিভিন্ন মূল্যবান মালামাল লুটপাট করে নিয়ে যায়।সম্পাদনা: জেরিন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত