প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিমান বিধ্বস্তের ঘটনায় গভীর দুঃখ প্রকাশ করলেন আইআরজিসি প্রধান

রাশিদ রিয়াজ : ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী (আইআরজিসি’র) কমান্ডার-ইন-চিফ মেজর জেনারেল হোসেইন সালামি ভুলবশত ইউক্রেনের যাত্রীবাহী বিমান গুলি করে ভূপাতিত করার ঘটনায় গভীর দুঃখ প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেছেন, জীবনে তিনি কখনো এতটা লজ্জা অনুভব করেননি। জেনারেল সালামি রোববার ইরানের পার্লামেন্ট অধিবেশনে দেয়া এক বক্তব্যে এ দুঃখ প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, গুলিতে বিমান ভূপাতিত হওয়ার ঘটনা শোনার পর তার মনে হয়েছিল, এ খবর শোনার চেয়ে তিনি ওই বিমানের যাত্রী হিসেবে নিহত হয়ে গেলেই ভালো ছিল।

আইআরজিসি’র প্রধান বলেন, ইরানের জনগণের শান্তি, নিরাপত্তা ও কল্যাণ নিশ্চিত করার জন্য আইআরজিসি’র প্রতিটি সদস্য জীবন উৎসর্গ প্রস্তুত রয়েছে। গত ৮ জানুয়ারি ইউক্রেনের একটি যাত্রীবাহী বিমান কিয়েভ হয়ে কানাডার টরোন্টো যাওয়ার পথে ভুলবশত আইআরজিসি’র ছোঁড়া গুলির আঘাতে তেহরানের কাছে বিধ্বস্ত হয়। ইরাকে অবস্থিত দু’টি মার্কিন ঘাঁটিতে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র হামলার দু’ঘণ্টা পর এ দুঃখজনক ঘটনা ঘটে। বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার ঘটনায় ১৭৬ আরোহীর সবাই নিহত হন। এসব যাত্রীর মধ্যে ১৪৭ জন ছিলেন ইরানি যাদের অনেকের আবার কানাডা ও ব্রিটেনের পাসপোর্ট ছিল।

মেজর জেনারেল সালামি পার্লামেন্টে দেয়া বক্তব্যে আরো বলেন, মার্কিন সন্ত্রাসী হামলায় আমাদের জেনারেল কাসেম সোলাইমানির শাহাদাতের পর আমরা যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে অজানা যুদ্ধের মনস্তাত্ত্বিক আবহে প্রবেশ করি। যাত্রীবাহী বিমানের হতভাগ্য আরোহীরা সেই টানটান উত্তেজনাকর পরিস্থিতির শিকার হয়েছেন যা আমাদের কারো কাম্য ছিল না।

মার্কিন ঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা সম্পর্কে আইআরজিসি প্রধান বলেন, যুক্তরাষ্ট্রকে ইরানের শক্তি বুঝিয়ে দেয়ার লক্ষ্যে ওই হামলা চালানো হয়েছে এবং সে লক্ষ্য অর্জনে ইরানের শতভাগ সাফল্য লাভ করেছে। তবে মার্কিন সেনাদের হত্যা করা এবারের হামলার লক্ষ্য ছিল না বলেও তিনি মন্তব্য করেন। জেনারেল সালামি বলেন, বিমান ভূপাতিত করার ঘটনায় আমাদের এত বড় অর্জন ম্লান হয়ে গেছে। পারসটুডে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত