প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিদ্রোহীরা প্রার্থিতা প্রত্যাহার না করলে ব্যবস্থা নিবে আওয়ামী লীগ

মাজহারুল ইসলাম : ঢাকা উত্তর-দক্ষিণ সিটি নির্বাচনে কাউন্সিলর পদে ‘বিদ্রোহী প্রার্থী’ নিয়ে বেশ চিন্তিত আওয়ামী লীগের নীতিনির্ধারকরা। একক প্রার্থী নিশ্চিত করতে রীতিমতো হিমশিম খেতে হচ্ছে দলটিকে। কেন্দ্রীয় ও মহানগর নেতাদের উদ্যোগে বেশ কয়েকটি ওয়ার্ডে বিদ্রোহী প্রার্থীকে বুঝিয়ে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করানো হলেও এখনও অনেক ওয়ার্ডে একাধিক প্রার্থী রয়েছেন। এমন পরিস্থিতিতে আজকের মধ্যে বিদ্রোহীদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের নির্দেশ দিয়েছে দলটি। অন্যথায় তাদের বিরুদ্ধে কঠোর সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে। সূত্র : যুগান্তর

বুধবার ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ঢাকা দক্ষিণ নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব হুমায়ুন কবির এবং উত্তরের সাধারণ সম্পাদক এবং উত্তরের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব এসএম মান্নান কচি স্বাক্ষরিত পৃথক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে ওই নির্দেশনা দেয়া হয়।

এ বিষয়ে হুমায়ুন কবির  বলেন, নির্বাচনকে কেন্দ্র করে গঠিত কমিটি, মহানগর আওয়ামী লীগ এবং থানা পর্যায়ের নেতারা বিদ্রোহীদের সঙ্গে কথা বলেছেন। তাদের বোঝানোর চেষ্টা করেছেন।

দলীয় সূত্রমতে, এমন পরিস্থিতিতে বিদ্রোহী প্রার্থীরা দলীয় প্রার্থীদের বিজয়ের পথে কাঁটা হতে পারে। কেন্দ্রীয় ও নগরের নির্দেশনার কথা জানিয়ে সতর্ক করা হয়েছে বিদ্রোহী প্রার্থীদের । তাদের বলা হয়েছে, দলসমর্থিত প্রার্থীর বিরোধিতা করার অর্থ, দল ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার বিরোধিতা করা। এ অবস্থায় কেউ সরে না গেলে সাংগঠনিক শাস্তির মুখে পড়তে হবে ।

এ বিষয়ে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য এবং সিটি নির্বাচনে ঢাকা উত্তর দলের টিম লিডার তোফায়েল আহমেদ বুধবার বিকালে বলেন, আমরা চেষ্টা করছি প্রত্যেকটি ওয়ার্ডে একজন করে প্রার্থী রাখতে। একাধিক প্রার্থী যেখানে ছিলো, তাদের আমরা বসানোর চেষ্টা করছি। অনেক জায়গায় আমরা সফলও হয়েছি।

এদিকে আগামী ৩০ জানুয়ারি অনুষ্ঠেয় নির্বাচনকে সামনে রেখে দলীয়ভাবে একক প্রার্থীর নাম ঘোষণা করা হলেও দুই সিটির ১২৯টি ওয়ার্ডে দুই শতাধিক বিদ্রোহী প্রাথী রয়েছেন। এদের মধ্যে অন্তত ২০ জন আছেন বর্তমান কাউন্সিলর। অর্ধশতাধিক বিদ্রোহী প্রার্থী দলীয় সমর্থন পুনর্বিবেচনা ও কাউন্সিলর প্রার্থী উন্মুক্ত করে দেয়ার জন্যও আবেদন করেছেন।

এর আগে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছিলেন, আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থীদের নিয়ে দলের অভ্যন্তরে কিছু কিছু জায়গায় প্রশ্ন উঠেছে। এ জন্য তৃণমূল পর্যন্ত আমরা টিমওয়ার্ক করছি। কোথাও বিতর্কিত প্রার্থী থাকলে এবং প্রার্থীর অবস্থান কী, এগুলো আমরা ‘ফাইন্ড আউট’করবো।

 

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত