প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

অবৈধ দখল ও খননের অভাবে ঝিনাইদহের নদ-নদী মরা খালে পরিণত

সুলতান একরাম: দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের সীমান্তবর্তী জেলা ঝিনাইদহ। জেলার ৬ টি উপজেলার বুক চিরে বয়ে গেছে ১২ টি নদ-নদী। এই নদ-নদী দিয়ে চলাচল করতো শামপান ও পালতোলা নৌকা। ঝিনাইদহ শহরে ব্যবসার কাজে বণীকেরা আসতো এই নদী পথেই।

এই নবগঙ্গা নদী থেকেই ঝিনুক এবং মুক্তা সংগ্রহ করত এলাকার কর্মজীবী মানুষরা।

কিন্তু খননের অভাব আর দখলদারদের কারণে নদীগুলো পরিণত হয়েছে মরা খালে। এখন আর যৌবন নেই নদ বা নদীগুলোতে। শুষ্ক মৌসুমে পানি থাকে না।

এ সুযোগে নদীর পাড়ের জায়গা দখল করতে ব্যস্ত দখলদাররা।

জানা যায়, ঝিনাইদহের উপর দিয়ে বয়ে গেছে নবগঙ্গা, চিত্রা, কুমার, বেগবতি, গড়াই, ইছামতি, ডাকুয়া, কপোতাক্ষ, কালীগঙ্গা, কোদলা, ফটকী ও বুড়ী নদ-নদী। যার মোট আয়তন ১ হাজার ৬’শ ৪১ দশমিক ৭৫ হেক্টর।

ঝিনাইদহ পরিবেশ ও জীব বৈচিত্র সংরক্ষন কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও নদী রক্ষা কমিটির নেতা মিজানুর রহমান বলেন, জেলার সবগুলো নদীই এখন দখলদারদের দখলে। এ দখলদারদের উচ্ছেদ করার জন্য আমরা প্রশাসনকে বার বার তাগাদা দিচ্ছি। তাদের সাথে মিটিং করছি, স্মারকলিপি দিচ্ছি। আজ পর্যন্ত স্থানীয় প্রশাসন দখলদারদের উচ্ছেদের ব্যাপারে কোনো প্রদক্ষেপই গ্রহণ করেনি।

ঝিনাইদহের জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথ বলেন, সেসব স্থানে অবৈধ দখলদার রয়েছে সেখানে দ্রæতই অভিযান চালিয়ে দখলদারদের উচ্ছেদ করা হবে। সম্পাদনা : জেরিন

সর্বাধিক পঠিত