প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আন্তর্জাতিক বাজারের অজুহাতে দেশেও এলপিজি’র দাম বাড়াচ্ছে বিভিন্ন কোম্পানি-বিপিসি’র অস্বীকার

শাহীন চৌধুরী: মধ্যপ্রাচ্যে উত্তেজনার কারণে আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি তেলের দাম বেড়ে যাওয়ায় দেশে এলপিজি’র দাম বাড়িয়েছে কিছু কিছু কোম্পানি। ঢাকায় ১২ কেজির এলপিজি ক্ষেত্র বিশেষে ২শ’ টাকা পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। ঢাকার বাইরে চট্টগ্রাম, খুলনা এবং রাজশাহীতেও এলপিজির দাম বাড়ানোর খবর জানিয়েছেন স্থানীয় প্রতিনিধিরা। সেখানে এই বৃদ্ধির পরিমান ২শ’ থেকে ৩শ’ টাকা বলে জানা গেছে। অবশ্য বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশন বিপিসি এই মূল্যবৃদ্ধির কথা অস্বীকার করেছে।

এদিকে বিশ্ববাজারে দাম বাড়ার পরদিনই বাংলাদেশে দাম বাড়া নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। কারণ, আজ যদি কোনো বাংলাদেশি কোম্পানি বিশ্ববাজার থেকে তরলীকৃত পেট্রোলিয়াম গ্যাস (এলপিজি) কিনতে ঋণপত্র (এলসি) খোলে, তাহলে তা দেশে আসতে অন্তত এক মাস সময় লাগবে। কিন্তু দাম বাড়াতে এক দিনও সময় লাগল না। এ বিষয়ে যমুনা এলপিজির ব্যবস্থাপনা পরিচালক বেলায়েত হোসেন বলেন, শনিবার থেকে বর্ধিত দামে বিক্রি হচ্ছে। তবে সিলিন্ডারপ্রতি কত বেড়েছে, সে তথ্য আমি এখন বলতে পারছিনা।

মূল্যবৃদ্ধি প্রসঙ্গে বিপিসি-র চেয়ারম্যান সামসুর রহমান বলেন, বিপিসির এলপিজির দাম বাড়েনি, আগের মতোই ৭৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এমনকি গত বাজেটে ২৫ টাকা কর বাড়ানোর পরও আমরা দাম বাড়াইনি। প্রসঙ্গত, চাহিদা অনুযায়ী দেশে বার্ষিক ১৫ লাখ টনের বেশি এলপিজি দরকার। তবে আমদানি ও বিক্রি হচ্ছে বার্ষিক প্রায় ১০ লাখ টন। এর মধ্যে ২০ হাজার টন এলপিজি সরকারিভাবে বিক্রি হয়। অর্থাৎ বিপিসি মোট চাহিদার মাত্র ২ শতাংশ জোগান দেয়।

সরকারি প্রতিষ্ঠান এলপি গ্যাস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফজলুর রহমান খান প্রথম বলেন, প্রতি টন ১২৯ ডলার বেড়েছে। সর্বোচ্চ ১৩০ টাকা বাড়াতে পারে তারা। তা ছাড়া যদি এখনই এলসি করে এলপিজি আমদানির জন্য, সেটি আসতেও এক মাস লাগবে। কিন্তু আন্তর্জাতিক বাজারে দাম বাড়ার ঘোষণা শুনে বাংলাদেশে এলপিজির দাম বাড়ার যৌক্তিকতা নেই। আবার যখন কমে তখন সে অনুযায়ী এলপিজির দাম তারা কমায় না। এখানে সরকারের নিয়ন্ত্রণ দরকার।

এদিকে হঠাৎ করে সিলিন্ডার গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধি পাওয়ায় দুর্ভোগে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। তারা বলছেন, এলপি গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির প্রভাব পড়েছে রান্নাঘর থেকে সবখানে। এ সুযোগে অন্য জিনিসের দামও বৃদ্ধি পাচ্ছে। আর বিক্রেতারা বলছেন, শীতপ্রধান দেশগুলোতে কাঁচামালের চাহিদা বৃদ্ধি পাওয়ায় আন্তর্জাতিক বাজারে গ্যাসের দাম বেড়েছে। বাংলাদেশেও এর প্রভাব পড়েছে। বেসরকারি এলপি গ্যাস কোম্পানিগুলোর সমিতির নেওয়া সিদ্ধান্ত অনুযায়ী গ্যাসের এ মূল্য বৃদ্ধি করা হয়েছে।

এলপিজি অটোগ্যাস এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক হাসিন পারভেজ আমাদের অর্থনীতিকে বলেন, বোতলজাত এলপিজি’র দাম কিছুটা বেড়েছে। কোম্পানি ভেদে এর দাম ২০০ টাকার মত বাড়িয়েছে। আন্তর্জাতিক বাজারে গ্যাসের এই বর্ধিত মূল্য বহাল থাকলে এক থেকে দেড় মাসের মাথায় এলপিজি অটোগ্যাসের দামও বাড়াতে হবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত