প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সানস্ক্রিন মেখে সমুদ্রস্নান নিষিদ্ধ করলো পালাউ

আপেল মাহমুদ : প্রথম দেশ হিসেবে সানস্ক্রিন মেখে সমুদ্রে নামা নিষিদ্ধ করলো প্রশান্ত মহাসাগরীয় দ্বীপরাষ্ট্র পালাউ। পরিবেশ বাচাঁতে বুধবার থেকে সাগরের জলজ প্রাণী, উদ্ভিদ ও প্রবালের জন্য অতীব ক্ষতিকর বিষাক্ত সানস্ক্রিন নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, সানস্ক্রিনের রাসায়নিক প্রবালদের জন্য খুবই ক্ষতিকর। সানস্ক্রিনে উপস্থিত ক্ষতিকারক রাসায়নিক অক্রিবেঞ্জোনের প্রভাবে পুনজীবনের শক্তি হারিয়ে ফেলে প্রবাল। আর এই প্রবালই সমুদ্রের জীবনচক্রকে ধরে রাখে। এভাবে চলতে থাকলে একদিন নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে প্রবাল সাথে তার সাথে সম্প্রক্ত সামুদ্রিক জীবনচক্র।

পালাউ’র প্রেসিডেন্ট টমি রিমেনগিসাউ বলেছেন, আমাদের বাঁচতে হবে। সেই সঙ্গে পরিবেশকেও বাঁচাতে হবে। পরিবেশের প্রতি যত্নবান হতে হবে। কারণ পরিবেশই জীবনের আধার।

বিবিসি জানিয়েছেন, আগামী দিনে হাওয়াই দ্বীপপুঞ্জেও সানস্ক্রিন নিষিদ্ধ হতে পারে। প্রশান্ত মহাসাগরের বুকে ভাসমান পালাউ ও হাওয়াই দ্বীপপুঞ্জের প্রতিটি দ্বীপের নৈসর্গিক সৌন্দর্য অতুলনীয়। হাওয়াইয়ের স্বর্গীয় সমুদ্র তট ও অতল শান্ত নীল জলরাশির টানে সারাবছর বিদেশি পর্যটকদের ভিড় লেগেই থাকে এখানে। রোজ হাজার হাজার মানুষ সূর্যের চড়া তাপ উপেক্ষা করে গা ভাসান শান্ত মহাসাগরের শীতল জলে।

সান র্বান আর ট্যান পড়া থেকে ত্বককে বাঁচাতে সানস্ক্রিন লোশন গায়ে মেখেই নোনা জলে গা ভেজান পর্যটকরা। কিন্তু সেই লোশন মানুষের ত্বক বেয়ে মিশে যায় প্রশান্ত মহাসাগরের জলে। সানস্ক্রিনের ক্ষতিকারক বিষাক্ত রাসায়নিক স্রোতের টানে পৌছে যায় মহাসাগরের অতলে বেড়ে ওঠা হাওয়াই দ্বীপপুঞ্জের প্রবাল সাম্রাজ্য। সম্পাদনা : রাশিদুল

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত