প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রংপুরকে হারিয়ে রাজশাহীর প্রতিশোধ

রাকিব উদ্দীন : বঙ্গবন্ধু ‍বিপিএলে রংপুর রেঞ্জার্সের বিপক্ষে প্রথম দেখায় হেরে গিয়ে শঙ্কায় পড়ে গিয়েছিল রাজশাহী রয়্যালস। তবে ফিরতি লেগে রাজশাহীকে ৩০ রানে হারিয়ে ফের জয়ের ছন্দে ফিরেছে দলটি। সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন রংপুরের অধিনায়ক শেন ওয়াটসন। ব্যাট করতে নেমে বোপারার ঝড়ো অর্ধশতকে ১৮০ রানের লক্ষ্য দাঁড় করাতে সক্ষম হয় রাজশাহী। এছাড়া দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন আফিফ হোসেন ও শোয়েব মালিক।

রাজশাহীর হয়ে ওপেনিংয়ে দুর্দান্ত শুরু করেন আফিফ হোসেন ও লিটন দাস। দলীয় ৫১ রানে লিটনের উইকেট পড়ার পর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট পড়তে থাকে। অবশ্য রানের গতি কমেনি দলটির। ব্যাক্তিগত ৩২ ও ২০ রানে সাঝঘরে ফিরেন আফিফ ও ইরফান শুক্কুর। এরপর দলের হাল ধরেন শোয়েব মালিক ও রবি বোপারা। ৩৭ রানে মালিক সাঝঘরে ফিরলেও ঝড়ো অর্ধশতক তুলে নেন বোপারা। শেষ মুহূর্তে মোহাম্মদ নেওয়াজের ১৫ রানের ক্যামিও ইনিংসে ভর করে দলীয় রান ১৭৯ তে নিয়ে যায় রাজশাহী।

রংপুরের হয়ে দুইটি উইকেট নেন মুস্তাফিজ।

জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে শুরুতেই চাপে পড়ে যায় রংপুর। অধিনায়ক শেন ওয়াটসন চাপ জয়ের বদলে সাজঘরে ফিরে যান ৯ বলে ২ রান করে। আরেক ওপেনার নাইম শেখ চাপ জয়ের চেষ্টা চালিয়েছিলেন অবশ্য, তবে ১৮ বলে ২৭ রান করে সাজঘরে ফেরেন তিনিও।

এরপর ক্যামেরন ডেলপোর্টের ৭ বলে ১৪, টম আবেলের ২৪ বলে ২৯ ও ফজলে মাহমুদের ২৬ বলে ৩৪ রানের ইনিংস তিনটি দলের জয়ের জন্য যথেষ্ট হতে পারেনি। শেষদিকে ঝড়ো ব্যাটিং উপহার দিতে পারেননি কেউই। শেষপর্যন্ত রংপুর পরাজয় বরণ করে ৩০ রানের বড় ব্যবধানে। নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ৭ উইকেট হারিয়ে দলীয় সংগ্রহ দাঁড়ায় ১৪৯ রান।

রাজশাহীর পক্ষে শোয়েব মালিক, মোহাম্মদ নাওয়াজ ও কামরুল ইসলাম রাব্বি দুটি উইকেট শিকার করেন।

সর্বাধিক পঠিত