প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মেয়র নির্বাচিত হলে ৯০ দিনের মধ্যে নাগরিকদের মৌলিক সেবা নিশ্চিত করা হবে, বললেন তাপস

সমীরণ রায় ও নূর মোহাম্মদ: বুধবার সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির শহিদ শফিউর রহমান মিলনায়তনে বাসেত মজুমদারের জন্মদিনের অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগ মনোনীত ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন (ডিএসসিসি) নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস একথা বলেন।

ব্যারিষ্টার তাপস বলেন, আমাদের তরুণ সমাজ পর্যাপ্ত খেলাধুলা থেকে বঞ্চিত। আমি লক্ষ্য করেছি, ঢাকা দক্ষিণের সবগুলো ওয়ার্ডে পর্যাপ্ত খেলাধুলার সুবিধা নেই। এটা আমাদের করতে হবে। এটা একটা দীর্ঘমেয়াদী কার্যক্রম। আমরা ৩০ বছর মেয়াদী মহাপরিকল্পনা করব। সেখানে প্রত্যেকটি ওয়ার্ডে যেনো খেলাধুলার মাঠ এবং পরিবেশ থাকে সে জিনিসটা লক্ষ্য করব।

দক্ষিণ সিটিতে দুজনই নতুন মুখ এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে তিনি বলেন, ঢাকা-১০ আসনে আমি দীর্ঘদিন এমপি হিসেবে কাজ করেছি। সেখানে অনেক প্রতিকূলতার মাঝে উন্নয়নের কাজ করেছি।ঢাকাবাসীর উন্নয়ন ও উন্নত রাজধানী উপহার দেয়ার জন্য কাজ করবো।

এর আগে জ্যেষ্ঠ আইনজীবী আবদুল বাসেত মজমুদারের ৮২তম জন্মদিনের অনুষ্ঠানে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন বলেন, ওনার সঙ্গে আমার অনেক স্মৃৃতি। তিনি আমার অনেক মামলা শুনানি করে দিয়েছেন। আমিও তার অনেক মামলা করেছি। জুনিয়র আইনজীবীদের উনি যেভাবে সহযোগিতা করেছেন অন্য কোনো আইনজীবীর এরকম দেখিনি। জুনিয়র আইনজীবী কত টাকা ফি দিয়েছেন সেটি কোনোদিন তিনি গুণে দেখেননি। আমি আবদুল বাসেত মজুমদারের দীর্ঘায়ু কামনা করি।

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ এম আমিন উদ্দিনের সভাপতিত্বে এবং ড. বশির আহমেদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বাসেত মজুমদারকে নিয়ে স্মৃতি চারণ করেন- সাবেক প্রধান বিচারপতি তাফাজ্জল হোসেন, সাবেক প্রধান বিচারপতি কে এম হাসান, আপিল বিভাগ ও হাইকোর্ট বিভাগের কয়েকজন বিচারপতি, অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম, বার কাউন্সিলের ভাইস চেয়ারম্যান ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন, সাবেক স্পিকার ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, সাবেক খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম ও সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল এএফ হাসান আরিফসহ আরো অনেক আইনজীবী।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত