প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রাজশাহীতে হচ্ছে মেডিকেল বর্জ্য শোধনাগার

মুসবা তিন্নি : রাজশাহী সিটি করপোরেশন (রাসিক) রাজশাহী নগরীর মেডিকেল বর্জ্য পরিশোধনের উদ্যোগ নিয়েছে। এ নিয়ে রাসিক ও প্রিজম বাংলাদেশ ফাউন্ডেশনের মধ্যে সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) স্বাক্ষর হয়েছে। খুব শিগগিরই প্রিজমের কর্মীরা নগরীর মেডিকেল বর্জ্য অপসারণের কাজ শুরু করবে।রাসিক ও প্রিজমের মধ্যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর অনুষ্ঠান।

রোববার দুপুরে নগর ভবনের সভাকক্ষে রাসিকের পক্ষে মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন ও প্রিজমের পক্ষে সংস্থাটির নির্বাহী পরিচালক খোন্দকার আনিসুর রহমান স্মারকে স্বাক্ষর করেন। এই চুক্তি অনুযায়ী, নগরবাসীর স্বাস্থ্যঝুঁকি কমিয়ে আনতে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ অন্যান্য ক্লিনিকের আউট হাউজ মেডিকেল বর্জ্য পরিবেশসম্মত উপায়ে সংগ্রহ করে পরিশোধন করবে প্রিজম।
ডিসেম্বরের শুরুতেই রাজশাহী নিউ ডিগ্রি কলেজসহ অন্যান্য স্থানে বিভিন্ন রাস্তার পাশে খোলা জায়গায় মেডিকেল বর্জ্য ফেলা হচ্ছে এমন তথ্য প্রকাশিত হয়। এতে স্বাস্থ্যঝুঁকিতে পড়েছেন নগরবাসী। তবে নির্ধারিত জায়গা না পাওয়ায় প্রাইভেট ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার মালিকরা সিটি কর্পোরেশনকে দায়ী করেছিলেন। এরই সিটি কর্পোরেশন মেডিকেল বর্জ্যব্যবস্থাপনায় সক্রিয় হয়। এ অবস্থায় মেডিকেল বর্জ্য অপসারণের উদ্যোগ স্বাস্থ্যঝুঁকি কমিয়ে আনারও একটি উদ্যোগ।

সিটি করপোরেশন জানিয়েছে, মেডিকেল বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় হাসপাতাল-ক্লিনিকিগুলোতেই ধরণ অনুযায়ী নির্দিষ্ট রঙের পাত্রে বর্জ্য আলাদা করে সংরক্ষণ করার ব্যবস্থা করা হবে। এতে রোগি এবং তার স্বজনদেরও ঝুঁকি কমবে। প্রিজমের দক্ষ ও প্রশিক্ষিত কর্মীরা স্বাস্থ্যসম্মত উপায়ে বর্জ্য সংগ্রহ করে নিয়ে যাবে। পরবর্তীতে সেসব বর্জ্য পরিশোধন করা হবে। এর মাধ্যমে পরিবেশ দূষণও হ্রাস হবে।

প্রিজমের সঙ্গে সমঝোতা স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, নাগরিকদের স্বাস্থ্যঝুঁকি কমাতে মেডিকেল বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় এ সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হলো। এটি একটি শুভ সূচনা। প্রিজম বাংলাদেশ ফাউন্ডেশনের নিজস্ব কর্মচারীরা মেডিকেল ও ক্লিনিক থেকে বর্জ্য সংগ্রহ করবে, তাদের ভ্যানে করে প্ল্যান্টে নিয়ে যাবে এবং পরিশোধন করবে। এতে করে সিটি করপোরেশনের নাগরিকেরা মেডিকেল বর্জ্যরে কারণে যে স্বাস্থ্যঝুঁকিতে আছেন, সেটা কমে যাবে। স্বাস্থ্য ঝুঁকিমুক্ত থাকবেন নগরবাসী।

অনুষ্ঠানে সিটি করপোরেশনের প্যানেল মেয়র-১ ও বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি সরিফুল ইসলাম বাবুর সভাপতিত্বে সমঝোতা স্মারক অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন ২১ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর নিযাম উল আযিম, ১৯ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর তৌহিদুল হক সুমন, সাবেক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আজাহার আলী, সচিব রেজাউল করিম, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা শাহানা আখতার জাহান, প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা শেখ মো. মামুন ডলার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সর্বাধিক পঠিত