প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কাউকে ছোট করতে নয়, ‘মানব কুকুর’ এক্সপেরিমেন্টের জন্য ‘পারফরর্মিং আর্ট’ করা হয়েছিলো কো আর্টিস্ট সেঁজুতি

লাইজুল ইসলাম: সোমবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের শিক্ষার্থী আরো বলেন, এটি একটি কাজ মাত্র। এটা আমাদের নৈতিক ও রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা বা আরো ভালো কোনো সামাজিক অবস্থার চিত্র দেখায় না। বরং সমাজ আমাদের ওপর যে সিস্টেম চাপিয়ে দিয়েছে সেটাই ফুটে উঠেছে। আমরা যে কাজটা করেছি এই কাজের প্রতি দৃষ্টিভঙ্গি এবং এই কাজটাকে সাধারণ মানুষ কীভাবে নিয়েছে সেটাই আমরা দেখতে চেয়েছি। এটা একটি পারফর্ম মাত্র। আমরা এক ঘণ্টা পারফর্ম করতে চেয়েছিলাম। কিন্ত পুলিশ আমাদের আটকে দেয়।

তিনি আরো বলেন, এ ধরনের কর্ম আগেও অন্যান্য দেশে হয়েছে। আমাদের জন্য এটি নতুন। এই পরফর্মের মাধ্যমে তুলে ধরা হয়েছে, সমাজ আমাদের ওপর যে বিষয়গুলো চাপিয়ে দিয়েছে তা আমরা বয়ে বেড়াচ্ছি। এই চিন্তাটা তার নয় বলে দাবি করে জানান, পারফর্মে আমি একজন কো আর্টিস্ট মাত্র। মূল চিন্তা ভাবনাটি ছিলো তার বিশ্ববিদ্যালয়ের বড় ভাই টুটুল চৌধুরির।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, রিপোর্ট করে ফেইসবুক বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। বিভিন্ন ভাবে তাকে মোবাইলে হুমকি দেয়া হচ্ছে। এমতাবস্থায় কারো ফোন ধরতেও ভয় পাচ্ছেন বলে জানান তিনি।

এমন ধরনের পারফর্ম হতেই পারে, তবে সেটি সমাজের ওপর কেমন প্রভাব ফেলবে তাও আমাদের দেখা প্রয়োজন বলে মনে করেন সাবেক সংস্কৃতি মন্ত্রী আসদুজ্জামান নূর। তিনি আরো বলেন, দেশের আইন-শৃঙ্খলার সঙ্গেও সংঙ্গতিপূর্ণ হলে আরে ভালো হয়।

অপরাধ বিশ্লেষক তৌহিদুল হক বলেন, এই পারফর্মের ঘটনা সবাইকে নারা দিয়েছে। জনগণের অবস্থা ও সমাজিক অবস্থার আরো উন্নতির প্রয়োজন, আর তা না হলে সামনের দিনগুলোতে মানুষের এই অবস্থাই হবে বলে এই পারফর্মের মাধ্যমে তুলে ধরা হয়েছে।

১৯৬৮ সালে ফেব্রুয়ারিতে অস্ট্রিয়ার ভিয়েনা শহরের রাস্তায় প্রথম দেখা যায় এ পারফর্মিং আর্ট। এর অর্থ হলো কার্টুনে যেমন বিভিন্ন প্রাণীকে মানুষের মতো কথা বলেতে দেখা যায়, তেমনি এখানেও মানুষকে প্রানীর চরিত্রে দেখানো হয়।

সর্বাধিক পঠিত