প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

খুলনায় দেড় লাখ টাকা ছিনতাই, একজন আটক

শরীফা খাতুন : বটিয়াঘাটা উপজেলার নারায়নপুরে দেড় লাখ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় নারায়নপুরের মহেন্দ্র মাতুব্বরের বাড়ির সামনে এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার পর রাতে জলিল শেখের ছেলে মো. রাজু শেখ বাদি হয়ে বটিয়াঘাটা থানায় মামলা করেন। মামলার বিবরণিতে বলা হয়, বটিয়াঘাটা থানাধীন নারায়নপুর গ্রামস্থ গোপাল বিড়ি ফ্যাক্টরির সুপারভাইজার জলিল শেখ বিভিন্ন এজেন্টের নিকট থেকে ফ্যাক্টরির দেড় লাখ টাকা সংগ্রহ করে ফ্যাক্টরি থেকে খুলনায় যাওয়ার জন্য আব্দুর রউফকে নিয়ে মোটরসাইকেল রওনা হন। পথে নারায়নপুর সাকিনস্থ ক মহেন্দ্র মাতুব্বরের বাড়ির সামনে পৌঁছামাত্র আগে থেকে ওত পেতে থাকা মিঠুন শেখ, ফিরোজ শেখ, রমজান গাইন ও জনি ফকির এজাহারনামীয় আসামিরা জলিল শেখকে চলন্ত মটরসাইকেলে বাঁশ দিয়ে বারি মারে। মোটরসাইকেলে থাকা জলিল শেখ ও আব্দুর রউফ পড়ে যান। আব্দুর রউফ রাস্তা থেকে খালে দিকে নিচে পরে যান এবং জলিল রাস্তার উপর পড়ে থাকেন। আসামিরা জলিলকে হাতুড়ি, লাঠি ও লোহার রড দিয়ে মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে গুরুতর আঘাত করে। তাতে তিনি মারাত্মক রক্তাক্ত জখম হযন। আসামিরা জলিল শেখের পকেটে থাকা গোপাল বিড়ি ফ্যাক্টরির দেড় লাখ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়। তাদের ব্যবহৃত মোটরসাইকেল ভাঙচুর করে অনুমান ২০ হাজার টাকার ক্ষতি করে। আহতদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে আসামিরা জলিল শেখকে খুন করার হুমকি দিয়ে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে স্থানীয়রা জলিল শেখকে উদ্ধার করে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যায়। বর্তমানে তিনি খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

শনিবার বটিয়াঘাটা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) প্রকাশ বলেন, মামলার পর রাত ১টার দিকে মামলার ১নং আসামি মিঠুন শেখকে আমিরপুর ইউনিয়নের নারায়রপুরের নিজ বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেপ্তার ও ছিনতাই হওয়া টাকা উদ্ধারে সাড়াশি অভিযান চলছে। সম্পাদনা : জহুরুল হক

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত