প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রাষ্ট্র হিসেবে ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের সম্পর্কটি কেমন?

 

রিফাত হাসান : রাষ্ট্র হিসেবে ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের সম্পর্কটি কেমন? ব্যবসার কথাতেই আসি। অপরিণত পুঁজির সঙ্গে ব্যবসা ও যেকোনো রকম বিনিময় ক্ষতিকর, এ রকম একটি তর্ক আছে। বিশেষজ্ঞ মহলের এই তর্কটি আমরা অভিজ্ঞতা দিয়ে টের পাই। ভারতের সঙ্গে আমাদের যে অভিজ্ঞতা, তা এই অভিমতকে জোরালো করে। পানি, ভূমি ও বাণিজ্য, সব জায়গায় এখনো জমিদারের মতো আচরণ ভারতের। আবার দেখুন কোনো কূটনৈতিক সম্পর্ক নয়, যুদ্ধ পরিস্থিতির মতো স্রেফ অনুপ্রবেশের অভিযোগে ভারতের সীমান্তরক্ষী বাহিনী শুধু দশ বছরে প্রায় ৯৫০ জন বাংলাদেশিকে খুন করেছে আমাদের সীমান্তে। কয়েকদিন আগে আমাদের ভূখ-েই ঢুকে পড়লো বিএসএফ।

ভূমির ভাগ ও পানির নায্য হিস্যার প্রশ্নে ভারতের আচরণ হলো মাস্তানির মতো। অপরাপর গু-ামির পাশাপাশি এইটাও একটা কারণ হতে পারে যে, ভারতে এখনো পুঁজির পূর্ণাঙ্গ বিকাশ হয়নি। তাই ভারতের অর্থনৈতিক লেনদেন ও আচরণ অপেক্ষাকৃত দুর্বল রাষ্ট্রগুলোর সঙ্গে সামন্ততান্ত্রিক রয়ে গেছে। কূপম-ুক। আপনার সঙ্গে ব্যবসা হবে, আপনার অংশ লুটপাট করেই। কৃপণ ও কূপম-ুক প্রতিবেশী। সব চেটেপুটে খাবে, আপনার অংশটি দিতে কৃপণতা করবে। কারণ হলো অবিকশিত পুঁজি স্টেকহোল্ডারের স্বার্থ দেখে না, দাদাগিরি কোয়ালায়। পাড়ার ক্ষেপাটে মাস্তানের ভূমিকা। আমি মনে করি, এই ধরনের রাষ্ট্রের সঙ্গে ব্যবসা করতে হলে আমাদেরও সমান লাঠিয়াল হতে হবে। সীমান্তে, বাণিজ্যে এবং কূটনীতিতে। তার আগে নয়। কারণ আমাদেরও অপরিণত পুঁজি। অপরদিকে পরিণত পুঁজি নিজের টিকে থাকার প্রয়োজনেই স্টেকহোল্ডারের স্বার্থ, ভারসাম্য ও কোটা নিশ্চিত করে থাকে। কেন বাংলাদেশের জন্য ভারতের পুঁজি ক্ষতিকর এবং পশ্চিমের পুঁজি কম ক্ষতিকর, তা নিয়ে এমন একটি আলোচনা আছে। আমি এই আলোচনাটি এবং বাংলাদেশের পররাষ্ট্র নীতির এই দুর্বল দিকটির আলোচনা আরও ব্যাপকভাবে হওয়ার পক্ষে। ফেসবুক থেকে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত