প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দলীয় প্রধানের মুক্তির আন্দোলন বেগবান করতে দুই সিটিতে জয়ের বিকল্প দেখছে না বিএনপি

শিমুল মাহমুদ : আগামী মে মাসে শেষ হচ্ছে ঢাকার দুই সিটি কর্পোরশেনের মেয়াদ। এরইমধ্যে শুরু হয়েছে রাজধানীর দুই সিটিতে ভোটের ক্ষণগণনা। জানুয়ারির শেষ দিকে দুই সিটির নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছে নির্বাচন কমিশন। সেই সঙ্গে প্রস্তুত হচ্ছেন বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশীরাও। তারা বলছেন, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে জনগণ ভোট দিতে পারলে দুই সিটিতেই খালেদা জিয়াকে বিজয় উপহার দিতে পারবেন তারা।

রাজধানীতে দলের জনপ্রিয়তা ও শক্তির প্রশ্নে উত্তরে তাবিথ আউয়াল ও দক্ষিণে প্রয়াত নেতা সাদেক হোসেন খোকার ছেলে ইশরাক হোসেনের কথা শোনা গেলেও পিছিয়ে নেই অন্যরাও। ঢাকা উত্তরে সম্ভাব্য প্রার্থী হিসাবে লবিং করছেন মহানগর উত্তর বিএনপির সভাপতি এম এ কাইয়ুম, যুবদলের কেন্দ্রীয় সভাপতি সাইফুল আলম নীরব, বিএনপি নেতা আনোয়ারুজ্জামান আনোয়ার, ২০ দলীয় জোটের শরিক এলডিপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিম প্রমুখ।

ঢাকা দক্ষিণে প্রার্থী হতে প্রচারণা ও লবিং করছেন বিএনপির বিশেষ সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপন, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব হাবিবুন নবী সোহেল, সাবেক ডেপুটি মেয়র আবদুস সালাম, নাসির উদ্দিন পিন্টুর স্ত্রী নাসিমা আক্তার কল্পনা, ব্যবসায়ী টিপু সুলতান, সাবেক কমিশনার কাজী আবুল বাশার প্রমুখ।

জানতে চাইলে বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা আব্দুস সালাম বলেন, সাদেক হোসেন খোকা মেয়র ছিলেন, তার জানাযায় বিপুল মানুষ অংশ নিয়েছে। এর মধ্য দিয়েও একটা আভাস পাওয়া যায়।

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনে বিএনপির সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়াল বলেন, আমাদের প্রথম কাজ হচ্ছে জনগণকে একটা আস্থার জায়গায় নিয়ে আসা। তাদের ভোটের অধিকার রক্ষা করা তাদেরই দায়িত্ব। সে দায়িত্ব থেকে তারাও সরতে পারবেন না। আর তাদের সহযোগিতা করার জন্য বিএনপি প্রস্তুত।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনে বিএনপির সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থী ইশরাক হোসেন বলেন, দলের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারনী পর্যায় থেকে আমাকে বলা হয়েছে কাজ করার জন্য। আমি কাজ শুরু করে দিয়েছি। দল আমাকে যে দায়িত্বটা দিতে চাচ্ছে তা নিয়ে শতভাগ আমি ঘরে আসতে পারবো।

কাউন্সিলর পদে মনোনয়ন প্রত্যাশী বুলবুল মল্লিক বলেন, এ বছর আমি পুরোপুরি প্রস্তুতি নিয়েছি। জনগণের সাথে আছি, তাদের আশা আকাঙ্খায় তাদের সঙ্গেই থাকবো। সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর ও মনোনয়ন প্রত্যাশী বেগম মহেরুন্নেসা হক বলেন, জনগণের প্রতিনিধি হয়ে এতদিন কাজ করে এসেছি। সামনেও সাধ্যমত চেষ্টা করবো। সম্পাদনা : ভিক্টর কে. রোজারিও

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত