প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সিদ্ধেশ্বরী থেকে উদ্ধার হওয়া লাশ পুলিশ কন্যার

সুজন কৈরী : রাজধানীর সিদ্ধেশ্বরী সার্কুলার রোড থেকে উদ্ধার তরুণীর লাশের পরিচয় মিলেছে। তিনি একজন পুলিশ কর্মকর্তার মেয়ে বলে শনাক্ত করা হয়েছে। নিহত ওই তরুণীর নাম রুবাইয়াত শারমিন রুম্পা (২১)। তিনি স্ট্যামফোর্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী। শান্তিবাগে পরিবারের সঙ্গে থাকতেন। তার বাবা রোকন উদ্দিন হবিগঞ্জে পুলিশের পরিদর্শক হিসেবে কর্মরত। তাদের গ্রামের বাড়ি ময়মনসিংহে।

বুধবার রাতে সিদ্ধেশ্বরী সার্কুলার রোডের আয়েশা শপিং কমপ্লেক্সের পেছনে দুই বাড়ির মাঝ থেকে অজ্ঞাত তরুণীর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। আশপাশের কোনো ভবন থেকে পড়ে গিয়ে তার মৃত্যু হতে পারে বলে ধারণা করলেও ভবনগুলোতে খোঁজ করেও ওই তরুণীকে শনাক্ত করতে পারেনি পুলিশ। বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) মর্গে ওই তরুণীর লাশের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়।

ঢামেকের ফরেনসিক বিভাগের প্রধান ডা. সোহেল মাহমুদ জানান, ওপর থেকে পড়েই তরুণীর মৃত্যু হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। তবে ধর্ষণের বিষয়টি নিশ্চিত হতে তার মৃতদেহ থেকে হাইভেজেনালসপসহ ভিসেরা সংগ্রহ করা হয়েছে। তা পরীক্ষাগারে পাঠানো হবে। সেই রিপোর্ট এলে বিস্তারিত প্রতিবেদন দেয়া হবে।

রমনা থানার ওসি মনিরুল ইসলাম জানান, ওই তরুণীর পরিচয় নিশ্চিত হওয়া গেছে। নাম রুম্পা। তার বাবা হবিগঞ্জ জেলা পুলিশে কর্মরত। রুম্পা ঢাকার স্ট্যামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের প্রথম বর্ষে ছাত্রী ছিলেন। শান্তিবাগে মা ও ভাইয়ের সঙ্গে থাকতেন। চাকরির কারণে রোকন হবিগঞ্জে থাকেন। রুম্পার মৃত্যুর কারণ এবং তার লাশ ওই স্থানে পড়ে থাকার বিষয়ে তদন্ত চলছে।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত