প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিএনপি যদি নিজেদের ভবিষ্যৎ ভাগ্যের হাতে সপে দেয়, তাহলে তাদের ধ্বংস অনিবার্য

 

প্রভাষ আমিন : আওয়ামী লীগ ২১ বছর পর ক্ষমতায় ফিরে এসেছিলো দারুণভাবে। কিন্তু ১৩ বছর ক্ষমতার বাইরে থাকা বিএনপিকেই যতোটা হতশ্রী মনে হচ্ছে। এ অবস্থায় কতোদিন টিকতে পারবে; তা নিয়ে অনেকের সন্দেহ আছে। ৭৫-এর পর মারাত্মকভাবে কোণঠাসা হয়ে পড়া আওয়ামী লীগ টিকে থাকতে পেরেছিলো দেশজুড়ে তৃণমূল পর্যায়ে বিস্তৃত শক্তিশালী সাংগঠনিক কাঠামোর কারণে। এখানেই পিছিয়ে পড়েছে বিএনপি। দেশজুড়ে এখনো বিএনপির জনপ্রিয়তা আছে। নেতৃত্ব যতোই অথর্ব হোক, আওয়ামী লীগ বিরোধী অংশের সমর্থন স্বয়ংক্রিয়ভাবে বিএনপির দিকেই আসে। কিন্তু বিএনপি সেই সমর্থনকে সাংগঠনকিভাবে গোছাতে পারেনি, রাজপথে নামাতে পারেনি। বিএনপির সমস্যা হলো, আওয়ামী লীগ বিরোধী সব শক্তিকে এক ছাদের নিচে আনতে পারলেও দলের আদর্শিক ঐক্য নেই বললেই চলে। পাশাপাশি বসে আন্দোলন করেন মুক্তিযোদ্ধা এবং রাজাকার। ক্ষমতায় থাকতে ক্যান্টনমেন্টে জন্ম নেয়া বিএনপির তেমন কোনো আদর্শিক টান নেই, যা নেতাকর্মীদের ধরে রাখতে পারে। বিএনপি একটি নির্বাচনমুখী, ক্ষমতামুখী রাজনৈতিক দল।

তাই ক্ষমতার বাইরে কতোদিন দলটি টিকে থাকবে তা নিয়ে নানা কথা হয়। সরকারের নানা দুঃশাসন, দুর্নীতি, লুটপাট, গণতন্ত্রহীনতার বিরুদ্ধে তো দূরের কথা, এমনকি দলের চেয়ারপারসনকে মুক্ত করতেও বিএনপি একটি কার্যকর আন্দোলন গড়ে তুলতে পারেনি। খালেদা জিয়া এখন ভাবতেই পারেন, এতোদিন কেন দল গড়ার জন্য সময় ব্যয় করলেন। বেগম খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতে দলের নেতৃত্ব ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের হাতে। তিনি লন্ডনে বসে স্কাইপে দল পরিচালনা করেন। তার এই স্টাইল পছন্দ নয় অনেকের। ইতোমধ্যেই দলের সিনিয়র নেতাদের অনেকেই দল ছেড়েছেন, অনেকে নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়েছেন। বিএনপির রাজনৈতিক তৎপরতা এখন নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ে রুহুল কবির রিজভীর নিয়মিত ব্রিফিং এ সীমাবদ্ধ হয়ে পড়েছে। এই অবস্থায় বিএনপির ভবিষ্যৎ নিয়ে অনেকে অনেক কথা বলছেন। অনেকেই বলছেন, বিএনপির পরিণতি হবে মুসলিম লীগের। এই অভিযোগের জবাবে বিএনপির এক নেতা বলেছেন, বিএনপি নয়, আওয়ামী লীগকেই মুসলিম লীগ হতে হবে। কারণ আওয়ামী লীগেরে জন্মই হয়েছিলো মুসলিম লীগ থেকে। বিএনপি ধ্বংস হয়ে যাবে, নাকি ঘুড়ে দাঁড়াবে; তা জানতে আরও অপেক্ষা করতে হবে। তবে বিএনপিও যদি নিজেদের ভবিষ্যৎকে ভাগ্যের হাতে সঁপে দেয়; তাহলে তাদের ধ্বংস অনিবার্য। সাহস নিয়ে ঘুড়ে দাঁড়ালেই তারা ভাগ্যের সহায়তা পেতে পারেন। নইলে হুটহাট রাস্তায় নেমে পুলিশের সঙ্গে ঢিলাঢিলি আর গাড়ি ভাংচুরে শক্তি ক্ষয় হবে শুধু। বিএনপিকে টিকে থাকতে হলে আগে দল গোছাতে হবে, জনগণের কাছে যেতে হবে। ঈষৎ সংক্ষেপিত। ফেসবুক থেকে

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত