প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রিপোর্টার্স ইউনিটির নির্বাচন নিয়ে দুটি জিজ্ঞাসা

 

পুলক ঘটক : এই নির্বাচনে রাজু আহমেদকে কোনোমতেই সভাপতি হতে দেওয়া যাবে না আমাদের কতিপয় ‘সিনিয়র নেতা’ এই ধরনের অবস্থান কেন নিলেন? শাহনাজ দুলাল তো এই নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার কথা ছিলো না। তাকে নামানো হয়েছে। উদ্দেশ্য ছিলো রাজুকে উঠতে দেওয়া যাবে না। এই উদ্দেশ্যের নেপথ্যে কী আছে? গতবারও একই ঘটনা ঘটানো হয়েছিল। প্রথম থেকেই প্রার্থী হওয়ার জন্য মাঠ চষে বেরিয়েছিলেন বিলু ভাই। কিন্তু তাকে নির্বাচন করতে দেওয়া যাবেনা। শেষ মুহূর্তে নামানো হয় লিটন ভাইকে। বিলু ভাইয়ের অপরাধটা কি ছিলো? দুলাল ভাই বা লিটন ভাই প্রার্থী হিসেবে অযোগ্য ছিলেন না।

কিন্তু বাস্তবতা হলো, তারা শুরু থেকেই মাঠে ছিলেন না। মাঠের প্রার্থীদের সরিয়ে দিতে তাদের দুজনকে ব্যবহার করেছে তৃতীয় পক্ষ। যারা এসব করছেন তারা কি আসলেই মুক্তিযুদ্ধের চেতনার ধারাকে সমুন্নত রাখতে চান? ২. আমার আরেকটি জিজ্ঞাসা আমাদের সকল সদস্যের প্রতি। এবারের নির্বাচনে আমরা বেশ কয়েকজন নারী সাংবাদিককে প্রার্থী হিসেবে পেয়েছিলাম। কিন্তু সদস্য পদে একজন ছাড়া আর কেউ জেতেনি। এর কারণ কি? আমরা কি সাংবাদিক নেতৃত্বে জেন্ডার সমতা প্রতিষ্ঠার বিষয়টি নিয়ে সিরিয়াস নই? আমাদের নারী সহকর্মী যারা প্রার্থী হয়েছিলেন তারাও প্রার্থী হিসেবে নিজেদের দুর্বলতা বা ঘাটতি কোথায় তা নিয়ে আত্মমূল্যায়ন করুন। আগামীতে যথেষ্ট সংখ্যক নারী সাংবাদিক নেতৃত্বে আসবেন এই প্রত্যাশা করি। নবনির্বাচিত নেতাদের অভিনন্দন। জয় হোক রিপোর্টার্স ইউনিটির। ফেসবুক থেকে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত