প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ইলিয়াস কাঞ্চনের প্রতি ভুল বোঝার অবকাশ নেই, প্রয়োজন সম্মান প্রদর্শন

মাহমুদুল হাসান : ইলিয়াস কাঞ্চনের আন্দোলন শ্রমিক ড্রাইভার সাধারণ মানুষ সবার জন্য। দেশের কোটি কোটি মানুষের ভালোবাসার ফসল একজন ইলিয়াস কাঞ্চন। রাতারাতি ইলিয়াস কাঞ্চন হওয়া যায় না। আজকের ইলিয়াস কাঞ্চন মানে শুধু একজন চিত্র নায়কই নোন। ইলিয়াস কাঞ্চন মানে একটি আন্দোলনের নাম একটি প্রতিষ্ঠান। বাংলাদেশের নিরাপদ সড়ক আন্দোলনের পুরোধা-প্রধান মানুষটি হচ্ছেন ইলিয়াস কাঞ্চন। তিনি এদেশের মানুষকে সড়ক নিরাপত্তায় সচেতন করে তুলতে যে প্রাথমিক আন্দোলনের সূচনা করেছিলেন প্রায় তিন দশকের ব্যবধানে তা আজ মাইলফলকে পরিণত হয়েছে। রাষ্ট্র-সরকার তার দাবি ও আন্দোলনের মুখে নিরাপদ সড়ক দিবস বাস্তবায়ন করেছেন। দেশের মানুষ সোচ্চার ও সচেতন হয়েছেন তার এই আন্দোলনের মাধ্যমে।

সড়ক নিরাপত্তা বিষয় নিয়ে তিনি যখন কথা বলেন, কর্মসূচীর ডাক দেন তা কোনো ব্যক্তি স্বার্থের পক্ষে নয়। তার সকল আন্দোলনই জনস্বার্থে। তার এ আন্দোলন আজ সারা বিশ্বব্যাপী সমাদৃত। তিনি ভাবেন এদেশের সকল মানুষকে নিয়ে। তিনি চিন্তা করেন আপনাদের নিয়ে (ড্রাইভার-শ্রমিক) কেননা সারাদিন পরিশ্রম করার পর যেনো আপনি আপনার পরিবারের কাছে ফিরে যেতে পারেন। এমন কি আপনার ছোট সন্তানটির কাছে। যে সন্তান আপনি বাসা থেকে বের হওয়ার সময় বলে দিয়েছিলো আব্বু আমার জন্য একটা চকলেট নিয়ে এসো। কিন্তু আপনি-আপনারা এই প্রতিদান দিলেন? বাহ কি চমৎকার প্রতিদান! আপনারা কিভাবেই বা এর প্রতিদান দিবেন? জাতির জনক বঙ্গবন্ধু, আমাদের জাতির পিতাও এদেশ স্বাধীন করে দিয়ে এমন প্রতিদান পেয়েছিলেন। আসলে এর জন্য দায়ী আপনারা নোন, এর জন্য দায়ী ঘুনে ধরা আমাদের এই সমাজ।

আর আমরা এই সমাজেরই বিবেকবান মানুষ। প্রত্যেকের বিবেকের কাছে একটি প্রশ্ন আমরা কি ভুল করছিনা? আমরা কি আমাদের বিবেকের কাছে দায়ী হয়ে থাকছিনা-অন্যায়ভাবে কারো প্রতি অসম্মান প্রদর্শনের জন্য? তাহলে আমাদের ন্যায় অন্যায়ের বোধ জাগ্রত হোক। ন্যায়ের সংগ্রামের পক্ষের নায়কের প্রতি আমাদের সম্মান প্রদর্শনের বোধটুকু ফিরে আসুক। যিনি আমাদের সবার জন্য লড়েন তার সাথে আমরা যেনো থাকি আমাদেরই স্বার্থে। সম্পাদনা : জেরিন মাশফিক

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত