প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শুরু হচ্ছে জাবির আন্দোলন

হাছান নাঈম, জাবি: জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্যের ইঙ্গিতে আন্দোলনরত ছাত্র শিক্ষকদের ওপর হামলার বিচার ও হল খুলে দেয়ার দাবিতে আল্টিমেটাম না মানায় শনিবার থেকে আবারও মাঠে নামছেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। অনতিবিলম্বে হল ভ্যাকেন্টের সিদ্ধান্ত বাতিলসহ তিনদফা দাবিতে শনিবার বিকেল তিনটায় শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরের সামনে সমাবেশের ডাক দিয়েছে ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ ব্যানারে আন্দোলনকারীরা।
বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন কলা ভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ এর আহ্বায়ক অধ্যাপক রায়হান রাইন এ ঘোষণা দেন।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট জাবি সংসদের সাংগঠনিক সম্পাদক শোভন রহমান বলেন, ‘নৈতিক স্খলন ও আর্থিক কেলেঙ্কারীর দায়ে অভিযুক্ত উপাচার্যকে অপসারণের দাবিতে গড়ে ওঠা নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলনে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ওপর উপাচার্যের নির্দেশে গত ৫ নভেম্বর হামলা চালানো হয়েছে।

উপাচার্যের অনুসারী কতিপয় ছাত্রলীগ কর্মী দ্বারা হমালার পরে শিক্ষার্থীদের কথা বিবেচনা না করে শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ করে হল ভ্যাকেন্টের মতো শিক্ষার্থী স্বার্থবিরোধী সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রশাসন।’ এসময় বল প্রয়োগ করে শিক্ষার্থীদেরকে হল ছাড়তে বাধ্য করে ভোগান্তিতে ফেলা হয়েছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে আরও বলা হয়, ফাঁকা ক্যাম্পাসের সুযোগকে কাজে লাগিয়ে মাস্টাররোল ও দৈনিক ভিত্তিতে একের পর এক কর্মচারী নিয়োগ দেয়া হচ্ছে। একইসাথে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ রেখে উপাচার্য তার অনুসারীদের আপগ্রেডেশন ও স্বজনদের নিয়োগের মহোৎসব চালিয়ে যাচ্ছেন বলে দাবি করেন তারা।

সংবাদ সম্মেলন থেকে বক্তারা অনতিবিলম্বে হল ভ্যাকেন্টের অবৈধ সিদ্ধন্ত থেকে সরে এসে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বাভাবিক শিক্ষার পরিবেশ নিশ্চিত করে ভোগান্তি দূর করতে বিশ্ব বিদ্যালয় প্রশাসন ও রাষ্ট্রের সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানকে আহ্বান জানান।

এসময় অধ্যাপক খবির উদ্দিন, অধ্যাপক হাসান মাহমুদ, অধ্যাপক তারেক রেজা, জাবি শাখা ছাত্র ইউনিয়নের সভপাতি নজির আমিন চৌধুরী জয়, সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ জাবি শাখার আহ্বায়ক শাকিলউজ্জামান সহ শিক্ষক- শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন। সম্পাদনা: জেরিন মাশফিক

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত