প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ব্যাপক সহিংসতার পর হংকংয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস দখলে নিয়েছে পুলিশ

শাহনাজ বেগম : ছাত্র ও বিক্ষোভকারীদের দ্বারা অবরুদ্ধ হংকংয়ের বিশ্ববিদ্যালয়ে সারা রাত অগ্নিসংযোগ ও তীর নিক্ষেপ করে তীব্র প্রতিবাদ কারার পর ক্যাম্পাসটি পুলিশ তাদের নিয়ন্ত্রণে নেয়। এ সময় কয়েকজন প্রতিবাদকারীকে ক্যাম্পাসের ভিতরে প্রবেশ করতে বাধ্য করে পুলিশ। সোমবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান অধ্যাপক জিন-গুয়াং টেং আন্দোলনকারীদের কাছে ভিডিও বার্তায় একটি বিবৃতি প্রকাশ করেছেন। তিনি পুলিশের সাথে একটি চুক্তি করেছেন বলে বিবৃতিতে বিক্ষোভকারীদের সতর্ক করেন। বিবিসি

বিবিৃতিতে জানান, বিক্ষোভকারীরা শান্তি বজায় না রাখলে পুলিশ তাদের উপর শক্তি প্রয়োগ করবে। এছাড়াও প্রতিবাদকারীরা শান্তিপূর্ণভাবে ক্যাম্পাস ছেড়ে চলে যায় তবে তিনি ব্যক্তিগতভাবে থানায় যেয়ে সুষ্ঠুভাবে তাদের মামলার প্রক্রিয়াতে সহায়তা করবেন। তবে অধ্যাপকের ওই বার্তাটির তেমন কোনও প্রভাব নেই বলে মনে হয়েছে এবং প্রতিবাদকারীরা ক্যাম্পাসের অভ্যন্তরেই রয়ে গেছেন। এতে সহিংসতা অন্যদিকে মোড় নেয়ার আশঙ্কাও রয়েছে।

এর আগে সারা রাত ধরে বিক্ষোভের পর সোমবার ভোরের দিকেও কয়েকজন ছাত্র বিক্ষোভ চালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। ছাত্রদের লক্ষ্য করে তখন পুলিশ টিয়ার গ্যাস ও রাবার বুলেট ছুঁড়তে থাকে। এতে ছাত্ররা পিছু হটে এবং ক্যাম্পাসের মধ্যে ফিরে যায়। এর আগে পুলিশ পলিটেকনিক বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রবেশের চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। কারণ ওই সময় ছাত্ররা পেট্রোল বোমা ও ইট নিয়ে পুলিশের লক্ষ্য করে ছুঁড়তে থাকে।

প্রায় পাঁচ মাস ধরে হংকংয়ে বিক্ষোভ অব্যাহত থাকা এশিয়ার সবচেয়ে বড় অর্থনৈতিক এই শহরটির সহিংসতা বেড়েই যাচ্ছে। এ পর্যায়ে হংকংয়ের ভিক্টোরিয়া হারবারের সুন্নিকটে অবস্থিত হুং হম এলাকায় কয়েক হাজার বিক্ষোভকারী কয়েকদিন ধরেই বিশ^বিদ্যালয় এলাকাগুলো দখল নিয়ে বিক্ষোভ করে। প্রত্যার্পণ বিল বাতিলের জন্য বিক্ষোভ শুরু হলেও এখন তা স্বাধীনতার দাবিতে পরিনত হয়েছে। সম্পাদনা : রাশিদুল

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত