প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ইরানে তেলের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে বিক্ষোভ রুপ নিচ্ছে সরকার বিরোধী আন্দোলনে, বিক্ষোভকারীদের প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের সমর্থন

সাইফুর রহমান : শনিবার দেশটির রাজধানী তেহরানসহ অন্যান্য শহরেও বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে নিরাপত্তা বাহিনীর দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়েছে এবং এত অন্তত ২ জন নিহত হয়েছেন। এসময় তারা বিভিন্ন হরে সড়ক অবরোধ করে এবং কয়েকটি ভবনেও আগুন ধরিয়ে দেয়। এছাড়া সিরজান শহরে পুলিশের গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়ার পাশাপাশি বিভিন্ন শহরে সরকার বিরোধী স্লোগানও দেয় তারা। এদিকে বিক্ষোভ ক্রমান্বয়ে সরকার বিরোধী আন্দোলনে রুপ নেয়ায় বিক্ষোভকারীদের প্রতি প্রকাশ্য সমর্থন জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেওর ভেরিফায়েড টুইটার একাউন্ট থেকে দেয়া এক পোষ্টে এই সমর্থন জানানো হয়। সিএনবিসি, রয়টার্স, বিবিসি,

শনিবার বিক্ষোভের দ্বিতীয় দিনে দেশের অন্তত ৪০টি শহরের রাস্তায় নামে বিক্ষোভকারীরা। রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের প্রতিবেদনে তাদেরকে দাঙ্গাবাজ আখ্যা দিয়ে বলা হয়, পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়ালে তাদের ছত্রভঙ্গ করতে কাঁদুনে গ্যাস নিক্ষেপ করেছে পুলিশ। এদিকে নিরাপত্তা বাহিনী যথেষ্ঠ ধৈর্যের পরিচয় দিয়েছে দাবি করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আবদোল রেজা রাহমানি হুঁশিয়ারি দেন, বিক্ষোভকারীরা রাষ্ট্রীয় সম্পদের ক্ষতি করলে শান্তি ফিরিয়ে আনতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীও যথাযথ পদক্ষেপ নেবে।

১৫ নভেম্বর কর্তৃপক্ষ সরকারি রেশনে দেওয়া পেট্রোলের মূল্য ৫০ শতাংশ বাড়ানোর ঘোষণা দেয়। লিটার প্রতি রেশনের পেট্রোলের দাম ১০ হাজার থেকে বাড়িয়ে ১৫ হাজার রিয়াল করার কথা জানায় কর্তৃপক্ষ। এছাড়া ব্যক্তিগত গাড়ির জন্য মাসিক বরাদ্দ হিসেবে তেলের পরিমাণ ৬০ লিটার নির্ধারণ করে দেওয়া হয়। এর বাইরে বাড়তি পেট্রোল কিনতে চাইলে লিটার প্রতি দাম পড়বে ৩০ হাজার রিয়াল। সরকারের এই ঘোষণার পর পরই দেশজুড়ে ব্যাপক সমালোচনা শেষ পর্যন্ত বিক্ষোভে গড়ায়।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত