প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মুম্বাইয়ে গ্রেফতার প্রাক্তন বিজেপি বিধায়কের ছেলে

রাশিদ রিয়াজ : শনিবার বিকেলে পিএমসি ব্যাংকের এই ডিরেক্টরকে আদালতে হাজির করে, হেফাজতে নেন ভারতীয় পুলিশের ইকনোমিক অফেন্সেস উইং’এর কর্তারা। রিয়েলটি গ্রুপ এইচডিআইএলের লোন মঞ্জুর করার ক্ষেত্রে ডিরেক্টর হিসেবে রণজিতের ভূমিকা খতিয়ে দেখতেই, তাকে হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। এইচডিআইএল নামের এই সংস্থা লোন নিলেও, তা পরিশোধ করেনি। রণজিত্‍‌ সিং বিজেপির প্রাক্তন বিধায়ক সর্দার তারা সিংয়ের ছেলে।

বিজেপি নেতার ছেলে রণজিত্‍‌ শুধু ডিরেক্টরই নন, তিনি ব্যাংকের লোন আদায় কমিটির সদস্যও। এইচডিআইএলের কাছ থেকে বকেয়া লোন আদায়ে তিনি আদৌ কোনও পদক্ষেপ করেছেন কি না, বা করলে কী পদক্ষেপ, তদন্তকারীরা তা জানতে চান।

তবে, জিগ্যাসাবাদে এখনও পর্যন্ত যতটুকু উত্তর রণজিত্‍‌ দিয়েছেন, তাতে সন্তুষ্ট হতে পারেননি মুম্বাই পুলিশের তদন্তকারী এই আধিকারিকেরা। ব্যাংক ডিরেক্টরের এ নিয়ে ব্যাখ্যা তদন্তকারী অফিসারদের কাছে অবিশ্বাস্য ঠেকেছে। আদালতে তাঁর পুলিশি হেফাজতের মেয়াদ আরও বাড়ানোর আর্জি জানাবেন তদন্তকারীরা। পিএমসির ৪৩৫৫ কোটি টাকার এই কেলেঙ্কারিতে এখনও পর্যন্ত ৯ জন গ্রেফতার হয়েছেন। তার মধ্যে তিন জন শীর্ষ সারির ব্যাংক আধিকারিকও রয়েছেন। এ ছাড়া গ্রেফতার করা হয়েছে রাকেশ ও সারং ওয়াধাওন নামে এইচডিআইএসের দুই প্রোমোটারকে। বাকিরা অডিটর।

মুম্বাই পুলিশের তদন্তকারী দলটির ধারণা, এইচডিআইএলের সঙ্গে অভিযুক্তদের কয়েক জনের অশুভ আঁতাত রয়েছে। সেশন কোর্টেও তদন্তকারীরা এই অশুভ জোটের উল্লেখ করেন। প্রাথমিক তদন্ত শেষে পুলিশের মনে হয়েছে এই ষড়যন্ত্রের শিকড় গভীরে পৌঁছেছে। যে কারণে আরবিআই এই ব্যাংক থেকে টাকা তোলা আপাতত বন্ধ করেছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত