প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কাশ্মীরে বিনামূল্যে ইন্টারনেট পরিষেবা দেয়ার কথা বলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ট্রলের শিকার পাকিস্তানি মন্ত্রী

সাইফুর রহমান : সম্প্রতি পাকিস্তানের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিমন্ত্রী ফাওয়াদ হুসেন চৌধুরী এক টুইটে লিখেন, ‘আজকাল সারা বিশ্বে ইন্টারনেট একটি মৌলিক অধিকার হিসেবে স্বীকৃত অথচ কাশ্মীরের নাগরিকরা খাঁচায় বন্দি হয়ে দিন কাটাচ্ছে। জম্মু কাশ্মীরে ইন্টারনেট পরিষেবা দেওয়ার উদ্দেশ্যে ইতোমধ্যে পাকিস্তান সরকারের আপার অ্যাটমোসফিয়ার রিসার্চ কমিশন এবং চীনের জাতীয় মহাকাশ সংস্থার সঙ্গে যোগাযোগ করেছে।’ তার এই টুইটবার্তা সামাজিক যোগাযোগের অন্যান্য প্লাটফর্মেও ছড়িয়ে পড়লে শুরু হয় ট্রলের বন্যা। ইন্ডিয়া টুডে, ইন্ডিয়াটিবি

নেটিজেনদের অনেকেই একে চলতি বছরের সবচেয়ে সেরা কৌতুক বলে মন্তব্য করেছেন। টুইটার এবং ফেইসবুকে এটি শেয়ার করতে গিয়ে অনেকেই হাস্যরসাত্মক শিরোনাম সংযোজন করেন। মন্তব্যের ঘরে অনেকে লিখেছেন, বিশ্বব্যাংক, আন্তর্জাতিক অর্থ তহবিল এবং বিশ্বের উন্নত দেশগুলির কাছ থেকে পাওয়া ঋণের অর্থে যাদের দিন কাটে, সেই পাকিস্তানের হাতে জম্মু ও কাশ্মীরে বিনামূল্যে ইন্টারনেট পরিষেবা দেয়ার পর্যাপ্ত অর্থ আছে তো?

উল্লেখ্য, গত ৫ আগস্ট সংবিধানের ৩৭০ ধারা বিলোপের মধ্য দিয়ে জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা প্রত্যাহার করে নেয় ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। এরপর বিভিন্ন বিধিনিষেধ আরোপের পাশাপাশি নিরাপত্তার কারণ দেখিয়ে উপত্যকায় ইন্টারনেট পরিষেবাও বন্ধ করে দেয় তারা।

সর্বাধিক পঠিত