প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

৯ বছরের লরেন্ট গ্র্যাজুয়েশন করার পর পিএইচডির খোঁজ নিচ্ছেন

রাশিদ রিয়াজ : বেলজিয়ামের লরেন্ট সিমন্স ইন্ডহোভেন প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ইলেক্ট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ছেন। গ্র্যাজুয়েট নেয়ার মত বয়সের যে কোনো ছাত্রের জন্যে এটি নিঃসন্দেহে শক্ত বিষয়। তাই লরেন্টের এই অর্জনকে বিশ্ববিদ্যালয়টির কর্মকর্তারা ‘সিম্পলি এক্সট্রাঅর্ডিনারি’ বলে অভিহিত করতে ভুল করেননি। কারণ ডিসেম্বর এই ছেলেটি তার ডিগ্রি অর্জনের পর পিএইচডি করবেন বলে মনস্থির করেছেন। সিএনএন

লরেন্টের বাবা আলেকজান্ডার সিমন্স বলছেন তার ছেলের মেডিসিনের ওপর পড়ার ইচ্ছা আছে। তার মা লিদিয়া জানান, লরেন্টের দাদা-দাদি মেয়েটিকে এক সেরা ও বিশেষ উপহার হিসেবে অভিহিত করেছিলেন। আর তার শিক্ষকরা তাকে গভীর আগ্রহ নিয়েই পড়িয়েছেন। কিন্তু অতটুকু বয়সে কিভাবে এত সিরিয়াস বিষয়ে অধ্যয়ন কিংবা তা আত্মস্থ করতে পারলো লরেন্ট এ সম্পর্কে তার বাবা-মায়ের কোনো ব্যাখ্যাই নাই। শিক্ষকরা তাকে তুলনা করেন স্পঞ্জের সঙ্গে যেমন তা তরলকে নিমিষেই শুষে নেয়, লরেন্ট তেমনি কোনো জ্ঞান পাওয়া মাত্রই তা আত্মস্থ করেন।

তবে লরেন্টের মা লিদিয়া মস্করা করেন বলেন, ও যখন আমার পেটে তখন আমি প্রচুর মাছ খেয়েছিলাম। আর বিশ্বিবিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বলছে লরেন্ট যে কোনো ছাত্রের চেয়ে দ্রুত জ্ঞান অর্জন করেছে। বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষা পরিচালক জোরেদ হালশোফ বলেন, এটা অস্বাভাবিক কিছু নয় তবে যে কোনো সিরিয়াস ছাত্র কোর্স কারিকুলামের সঙ্গে ধাতস্ত হতে যথেষ্ট বেগ পেয়ে থাকে। সেদিক থেকে লরেন্ট অসাধারণ তো বটেই। ও এত দ্রুত শিখতে পারে যে তা ‘হাইপার ইন্টিলিজেন্ট’ হিসেবে অভিহিত করা যায়। অথচ খুব কোমল স্বভাবের ছেলে সে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত