প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সৌদি বাদশাহকে উপদেশ দিয়ে চিঠি লেখার পর কারাগারে শেখ ফাহদ আল-কাদির মৃত্যু

রাশিদ রিয়াজ : সৌদি আরবের বিখ্যাত আলেম শেখ ফাহদ আল-কাদি তিন বছর ধরে কারাগারে আটক ছিলেন। এই প্রখ্যাত আলেম সৌদি নিপীড়িত জনগোষ্ঠী সাহওয়া আন্দোলনের ঘনিষ্ঠ সহযোগী ছিলেন। কারাগারে তাকে নির্যাতনের ফলে গুরুতর অসুস্থ হয়ে যাওয়ার পর তার চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়নি বলে অভিযোগ ওঠে। সৌদি বাদশাহ সালমানকে উপদেশ দিয়ে চিঠি লেখাই তার জন্যে কাল হয়ে গিয়েছিল এবং এজন্যে তাকে কারাগারে পাঠানো হয় বলে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠনগুলো অভিযোগ করে। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তিনি মারা যান। নিউ আরব

সৌদিতে ১৯৯০ সালে সাহওয়া আন্দোলন শুরু হয়। এ আন্দোলনের কর্মীরা দীর্ঘদিন ধরে সৌদি আরবে সংস্কারের দাবি জানিয়ে আসছে। তবে সৌদি কর্তৃপক্ষ তাদের সঙ্গে মুসলিম ব্রাদারহুদের সম্পৃক্ততা রয়েছে বলে অভিযোগ করছে। শেখ ফাহদ আল-কাদিকে সৌদি কর্তৃপক্ষ ৬ বছরের জেল দেয়। সৌদি আরবের আল কাসিম অঞ্চলের বাসিন্দা ছিলেন এই আলেম। ২০১৬ সালে সৌদি রাজকীয় আদালতে শেখ ফাহদ আল-কাদি বাদশাহর জন্যে বেশ কিছু পরামর্শ দেন। শেখ ফাহদ আল-কাদি একসময় সৌদি আরবের ধর্মীয় পুলিশ বিষয়ক কমিটিতেও কাজ করেছেন। তিনি সামাজিক নিষেধাজ্ঞাগুলি অপসারণের বিরোধিতা করে সৌদিতে রক্ষণশীল সমাজ সংরক্ষণের আহবান জানিয়েছিলেন। সৌদি ক্রাউন প্রিন্স তার দেশে সংস্কারের অংশ হিসেবে সিনেমা ও কনসার্ট চালু করলে তারও বিরোধিতা করেন এই আলেম।

তবে সৌদি কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে উস্কানি দেয়ার অভিযোগে শেখ ফাহদকে আটক করা হয়। সৌদিতে সাহওয়া আন্দোলনের জনক সালমান আল-আওদা যিনি দেশটির একজন প্রখ্যাত আলেম হিসেবে পরিচিত তাকেও ২০১৭ সালে কারাগারে নেয়া হয়েছে। এধরনের হাজার হাজার আলেম ও ভিন্ন মতাবলম্বীদের কারাগারে আটক রাখা হয়েছে এবং অনেককে বিনা বিচারে মৃত্যুদ- দিয়ে তা কার্যকর করা হচ্ছে বলে মানবাধিকার সংগঠনগুলো অভিযোগ করে আসছে। এমনকি উদারপন্থী হিসেবে পরিচিত ও নারী অধিকার নেত্রী লোওজাইন আল-হাথলোউলকে কারাগারে আটকে রাখা হয়েছে।গত আগস্টে আরেক আলেম শেখ সালেহ আল-দুমাইরি আল-কাশিমের একটি কারাগারে চিকিৎসার অভাবে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান।

সর্বাধিক পঠিত