প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

জয় এখনই আ.লীগের কেন্দ্রীয় নেতৃত্বে আসতে চান না, জানালেন কাদের

আবুল বাশার নূরু: শুক্রবার শেখ হাসিনার ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এ কথা জনান। তিনি বলেন, জয়ের ইচ্ছার ব্যাপারও আছে। এ ব্যাপারে নেত্রীকে কিছু বললে তিনি বলেন, জয় তো আসতে চায় না। এখনও তার আসার আগ্রহ নেই। আমাদের পার্টির সভাপতি শেখ হাসিনা, এটা তার সিদ্ধান্ত। জয় তো আছেনই। আমি বার বারই নেত্রীকে বলে আসছি, যে জয়কে গ্রুমিং করার বিষয়টা। এটা নেত্রীর সিদ্ধান্তের ব্যাপার। জয়ের নিজেরও ইচ্ছার ব্যাপার আছে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, জয় নিজেই যেভাবে আছেন সেভাবেই আপাতত থাকতে চান। তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে আওয়ামী লীগের কোনো পদে আসতে চান না। যেমন- জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পীরগঞ্জে তাকে মনোনয়ন দেওয়ার জন্য অনেকে দাবি করেছিল। কিন্তু তিনি রাজি হননি। জয় যখন বাংলাদেশে আসবেন, আপনারা তাকেও জিজ্ঞাসা করতে পারেন। দলে শেখ হাসিনা ছাড়া আরও কেউ অপরিহার্য ব্যক্তি নয় বলেও উল্লেখ করেন তিনি। দলের সাধারণ সম্পাদক পদেও নেত্রী যা ইচ্ছা করবেন, সেটাই হবে। তিনি পরিবর্তন চাইলে পরিবর্তন হবে। আমাদের এখানে কোনও প্রতিযোগিতা নেই। হয়তো কারও কারও ইচ্ছা ও আকাঙ্ক্ষা থাকতে পারে। সাধারণ সম্পাদক পদেও প্রার্থী থাকতে পারে। সেখানে কোনও অসুবিধা নেই। আমি যদি মনে করি আমার প্রতিদ্বন্ধ¦ী আর কেউ হতে পারবে না, এটা তো ঠিক না। এটা ডিসাইড করবেন নেত্রী। তবে প্রার্থী হওয়ার অধিকার সবার আছে।

এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, আওয়ামী লীগের কমিটির কলেবর এখন পর্যন্ত বাড়ানোর চিন্তাভাবনা নেই। কমিটি ৮১ জনেরই থাকবে। বর্তমান কমিটিতেই একটি সদস্যপদ ও সভাপতিমণ্ডলীর দুটি সদস্যের পদ খালি আছে। সেগুলো এই মুহ‚র্তে প‚রণ হবে না। সম্মেলনের মধ্য দিয়েই আমরা পুরো কমিটি করে ফেলবো, এটাই আমাদের সিদ্ধান্ত। শেখ হাসিনা নির্দেশ দিয়েছেন কোনও এমপি দলের উপজেলা পর্যায়ে পদপ্রার্থী হতে পারবেন না। এটা আমরা নিরুৎসাহিত করছি। উপজেলা পর্যায়ে সংসদ সদস্যদের আমরা অনুরোধ করছি তারা যেন সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক পদে না এসে ত্যাগী ও দুঃসময়ের নেতাকর্মীদের একটা সুযোগ করে দেন। কারণ, তাদেরও অধিকার আছে। তারা এমপিও হতে পারেনি, দলে নেতৃত্বও পাবেন না, এটা তো হয় না।

পেঁয়াজের মূল্য বৃদ্ধির বিষয়ে জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, পেঁয়াজের দাম বাড়ানোর সিন্ডিকেট খতিয়ে দেখা হচ্ছে। খুব শিগগিরই তুরস্ক, মিশর থেকে পেঁয়াজ আসবে, এ সংকট সাময়িক।

বিএনপি খালেদা জিয়ার মুক্তি আইনের মাধ্যমে চায় না অভিযোগ করে কাদের বলেন, তারা আন্দোলনের মাধ্যমেই তাকে মুক্ত করুক। এটা দেখার অপেক্ষায় আছি। আওয়ামী লীগের আসন্ন জাতীয় সম্মেলনে বিএনপিকে নিমন্ত্রণ করা হবে। নিবন্ধিত সব রাজনৈতিক দলকে আমন্ত্রণ জানানোর পাশাপাশি ক‚টনীতিকদেরও দাওয়াত দেওয়া হবে। যেহেতু মুজিববর্ষে বিদেশি অতিথিদের আমন্ত্রণ জানানো হবে, তাই এবারের সম্মেলনে কোনও বিদেশি মেহমানকে আমন্ত্রণ জানানো হবে না।

সংবাদ সম্মেলনে এনামুল হক শামীম, আব্দুস সবুর, এস এম কামাল হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত