প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

হাতঘড়ির দাম ২৬২ কোটি টাকা

ইয়াসিন আরাফাত : বিলাসবহুল ঘড়ির কথা উঠলেই সবার আগে যে দেশটির নাম সবার আগে সামনে আসে সেটি হলো সুইজারল্যান্ড। এ দেশটি এবারও বিশ্বের সব থেকে দামি ঘড়ির তৈরির ইতিহাস করলো। এটির নির্মাতা ওই দেশের অন্যতম ঘড়ি নির্মাতা প্যাটেক ফিলিপ। হাতঘড়িটির নাম ‘গ্র্যান্ডমাস্টার চাইম রেফারেন্স ৬৩০০এ-০১০’। গত শনিবার সুইজারল্যান্ডের জেনেভায়  এক নিলামে ঘড়িটি দাম উঠেছে বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ২৬২ কোটি টাকা। দি গার্ডিয়ান

জানা যায়, ডাচেন মাসকুলার ডেস্ট্রফি নামে একটি জিন ঘটিত রোগের চিকিৎসার গবেষণার জন্য অর্থ সংগ্রহ করছে প্যাটেক ফিলিপ। সে কারণেই এই ঘড়িটি নিলামে বিক্রির আয়োজন করা হয়। কোম্পানির প্রেসিডেন্ট থিয়েরি স্টের্ন জানান, তার আশা ছিলো ১১০ কোটি টাকার মতো উঠে আসবে। কিন্তু তিনি স্বপ্নেও ভাবেননি ঘড়িটির জন্য এতো টাকা উঠবে নিলামে।

১৮৩৯ সাল থেকে ঘড়ি তৈরি করছে প্যাটেক ফিলিপ। তবে যে ঘড়িটি, বুর্জ খালিফায় দেড়হাজার স্কোয়ারফুটের ৩২টি অ্যাপার্টমেন্ট বা রোলস রয়েস ফ্যান্টমের সেরা মডেলের ১১টি গাড়ির দামে বিক্রি হয়েছে সেটি কোম্পানির সব থেকে জটিল নক্সার ঘড়ি।

এই হাতঘড়িতে রয়েছে ১৩৬৬টি ছোট বড় পার্টস ও ২১৪ কেস কম্পোনেন্ট। শুধু এর জটিল ডিজাইনই নয় স্টেনলেস স্টিলের এই ঘড়িটিতে রয়েছে ১৮ ক্যারেটের ‘রোজ গোল্ড’ কেস। ঘড়িতে ঘণ্টা মিনিট সেকেন্ডের পাশাপাশি পাওয়া যাবে দিন, মাস, বছরও। শুধু তাই নয় এই তারিখ লিপিয়ার হিসেব করেও চলে।

ওয়াইএ/এমআই

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত