প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

অর্থনীতির অধোগতি সত্ত্বেও সঠিক পথে ভারত, মত অধিকাংশ মানুষের

রাশিদ রিয়াজ : ইপোস ইন্ডিয়া (অপারেশনস ডিরেক্টর) অমিত আদরকর এক বিবৃতিতে দাবি করেছেন, ‘এমনটা মনে করার কোনও কারণ নেই যে ভারতবাসী দেশের সাম্প্রতিক পরিস্থিতি সম্পর্কে অবহিত নন। বেকারত্ব ও কর্মসংস্থান, আর্থিক ও রাজনৈতিক দুর্নীতি এবং সাম্প্রতিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন অনেকেই। পরিসংখ্যান বলছে বেকারত্ব থেকে শিল্পোৎপাদন বা অর্থনৈতিক বৃদ্ধি, দেশে সবক্ষেত্রেই এখন ভাটার টান। ভারতের কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্কও জানিয়ে দিয়েছে আগে যেখানে তারা মনে করছিল ২০১৯-২০ অর্থবর্ষে বার্ষিক বৃদ্ধির হার ৭.২ শতাংশ হবে, সেখানে এখন তাঁরা মনে করছে বৃদ্ধি ১.১ শতাংশ পর্যন্ত কমতে পারে।

কিন্তু তা সত্ত্বেও ভারতের বিরাট সংখ্যক মানুষ মনে করছেন, দেশটি সঠিক পথেই এগোচ্ছে। অদূর ভবিষ্যতে পাল্টে যেতে চলেছে ছবিটা। এমনটাই দাবি করা হয়েছে ইপোসের সাম্প্রতিক সমীক্ষায়। যেখানে আরও বলা হয়েছে, নিরাশাজনক পরিসংখ্যান থেকেও যেখানে দেশবাসী ভরসা রাখতে পারছেন কেন্দ্র সরকারের নীতির উপর, সেখানে সমীক্ষায় অংশ নেওয়া বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ৬১ শতাংশই মনে করছেন, তাঁদের দেশকে সঠিক দিশা দেখাতে ব্যর্থ হয়েছেন সংশ্লিষ্ট দেশের সরকার। ভারতের সঙ্গেই যে সব দেশের মানুষ তাঁদের সরকারের উপর আস্থা রাখছেন, তার মধ্যে তালিকার উপর দিকে রয়েছে চীন ও সৌদি আরবের মতো দেশ। অন্যদিকে, দক্ষিণ আফ্রিকা, ইতালি এবং স্পেনের নাগরিকেরা সংশ্লিষ্ট দেশের সরকারের প্রতি চূড়ান্ত অনাস্থা প্রকাশ করেছেন সমীক্ষকদের কাছে।

ইপোস ইন্ডিয়া (অপারেশনস ডিরেক্টর) অমিত আদরকর এক বিবৃতিতে দাবি করেছেন, ‘এমনটা মনে করার কোনও কারণ নেই যে ভারতবাসী দেশের সাম্প্রতিক পরিস্থিতি সম্পর্কে অবহিত নন। বেকারত্ব ও কর্মসংস্থান, আর্থিক/রাজনৈতিক দুর্নীতি এবং সাম্প্রতিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন অনেকেই। কিন্তু একই সঙ্গে তাঁরা মনে করছেন আগামী দিনে এই পরিস্থিতি কাটিয়ে উঠতে কেন্দ্র সঠিক পথেই পদক্ষেপ করছে।’ একই সঙ্গে তাঁর দাবি, ‘সাম্প্রতিক পরিসংখ্যান যেখানে মোটেই আশাপ্রদ ছবি দেখাচ্ছে না, সেখানে অদূর ভবিষ্যতে সংখ্যা না গরিষ্ঠ সংখ্যক দেশবাসীর আস্থা, কোনটা সত্যি প্রমাণিত হয়, তা দেখতে আগ্রহী রয়েছি আমরা।

সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, যে যে দেশগুলি বেকারত্ব ও কর্মসংস্থানজনিত সমস্যায় বেশি ভুগছে, তার মধ্যে ভারতের সঙ্গেই রয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা, ইতালি, দক্ষিণ কোরিয়া ও স্পেন। দুর্নীতির সমস্যায় জর্জরিত দেশগুলির মধ্যে তালিকার উপর দিকে রয়েছে পেরু, রাশিয়া, হাঙ্গারি, মালয়েশিয়ার মতো দেশ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত