প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

অস্ট্রেলিয়ায় এইচআইভির ৬৪০ টাকার ওষুধ যুক্তরাষ্ট্রে ১ লাখ ৬০ হাজার টাকা

রাশিদ রিয়াজ : নিউইয়র্কের কংগ্রেসওম্যান আলেকজান্দ্রিয়া ওকাসিও-করটেজের খুব সাধারণ প্রশ্ন এধরনের ওষুধের মূল্যে তারতম্য নিয়ে। তিনি প্রশ্ন তুলে বলেন ওষুধ কোম্পানি গিলাদ গত বছর ৩শ কোটি ডলার মুনাফা করলেও এইচআইভির ওষুধে এত উচ্চমূল্য রাখছে কিভাবে? যার কারণে মানুষ মারা যাচ্ছে। এ প্রশ্ন আলেকজান্দ্রিয়া সরাসরি করেন গিলিয়াদের সিইও ড্যানিয়েল ও’ডে’কে। ক্যালিফোর্নিয়ার এ ওষুধ কোম্পানির এধরনে অতি মুনাফা নিয়ে কংগ্রেস ওম্যান যুক্তরাষ্ট্রের হাউস কমিটিতে তীব্র সমালোচনা করেন এবং এর একটা বিহিত করার আহবান জানান। তবে গিলিয়াদের সিইও আলেকজান্দ্রিয়ার সমালোচনার জবাব দেন তার কোম্পানি ৩শ কোটি ডলার মুনাফা নয় আয় করেছে। দি হিল

কিন্তু তাতে মন গলেনি আলেকজান্দ্রিয়ার। তিনি গিলিয়াদের সংস্কারের দাবি তুলে বলেন, যে ওষুধটি অস্ট্রেলিয়ায় ৮ ডলারে পাওয়া যায় তা যুক্তরাষ্ট্রে কিভাবে ২ হাজার ডলারে বিক্রি হয়? দক্ষিণ আফ্রিকায় এ ধরনের ওষুধ ৬ ডলারে পাওয়া যায় বলে তিনি জানান। কংগ্রেস ওম্যান আরো বলেন, সাধারণ মানুষের জন্যে ওষুধ তৈরি হয় আর তা যদি তারা কিনতেই না পারে, ওষুধের অভাবে বিনা চিকিৎসায় মারা যায় এজন্যে এর জবাবদিহিতা থাকা প্রয়োজন। শুধু পেটেন্টের বলেই কোনো ওষুধ কোম্পানি যাচ্ছেতাই মূল্য নির্ধারণ করতে পারে না। এ ওষুধ কিনতে সাধারণ মানুষের গাঁটের পয়সা খরচ করতে হয়। কোম্পানি বেসরকারি হলেও এর পিছনে মানুষের অবদান রয়েছে কারণ পেটেন্টের পিছনে তাদের অর্থ ব্যবহৃত হয়েছে। আর উচ্চমূল্যে এ ওষুধ যখন বিক্রি করা হচ্ছে তখন কোনো প্রশাসনিক হস্তক্ষেপ করা হয়নি যে কারণে বিনা চিকিৎসায় মানুষ মারা যাচ্ছে।

হাউজ কমিটির চেয়ারম্যান এলিজা কুমমিংস ও অন্যান্য ডেমোক্রেটরা বলেন, মার্কিন সরকারের লাখ লাখ ডলারের অনুদান নিয়ে গবেষণা চলে, এরপর বিজ্ঞানীরা এসব ওষুধ তৈরি করে। সরকারি বিজ্ঞানীরা পর্যন্ত এধরনের গবেষণায় যোগ দেন। তারপরও গিলিয়াদের এধরনের ওষুধের উচ্চমূল্য থাকার কারণে ১১ লাখ মানুষের মধ্যে ২০ শতাংশ মানুষ এ ওষুধ কিনতে পারে মাত্র। মার্কিন নাগরিকদের করের টাকায় বিনিয়োগের পর কোনো ওষুধ তৈরি হওয়ার পর তা যাতে সাধারণ মানুষের ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে থাকে সে বিষয়টিও বিবেচনায় রাখতে হবে। কিন্তু সমস্যা হচ্ছে গিলিয়াদ এইচআইভি ওষুধের দাম অতি উচ্চমূল্যে রাখায় তা সম্ভব হচ্ছে না। ইন্ডিপেনডেন্ট

সর্বাধিক পঠিত