প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দামে কারচুপির অভিযোগ
আগোরা এবং স্বপ্ন সুপার শপকে ২ লাখ টাকা জরিমানা

মো. আখতারুজ্জামান : হাইব্রিড নাম দিয়ে তুরস্কের পেঁয়াজ, বার্মার পেঁয়াজকে দেশি পেঁয়াজ বলে বিক্রি, ওজনে কম, পণ্যের মূল্যে কারচুপির অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় আগোরা এবং স্বপ্ন সুপার শপকে জরিমানা।

শনিবার বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের একটি বাজার তদারকি টিম অভিযোগের ভিত্তিতে রাজধানীর উত্তরায় অবস্থিত আগোরা এবং স্বপ্ন সুপার শপে অভিযান পরিচালনা করে উভয় সুপার শপকে বিভিন্ন অপরাধে ১ লক্ষ টাকা করে মোট ২ লাখ টাকা জরিমানা করে।

জানা যায়, স্বপ্ন সুপার শপে এক জন ভোক্তা ১ কেজি ১৪০ গ্রাম মুরগির মাংস ক্রয় করেন। ২৬০ টাকা হিসেবে মূল্য হয় ২৯৬ টাকা কিন্তু ক্রেতার কাছ থেকে দাবি করা হয় ৫৪০ টাকা। অন্যদিকে মাংসের প্যাকেটে লাগানো স্টিকারে বারকোড স্ক্যান করে দেখা যায় মূল্য লেখা আছে ৬১৫ টাকা। বাজার তদারকি টিমটি অভিযোক্ত প্রতিষ্ঠানে তদারকি করে ক্রেতার লিখিত অভিযোগের সত্যতার প্রমাণ পায়। এর ভিত্তিতে স্বপ্ন সুপার শপকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এছাড়া বিদেশি চিপসের প্যাকেটের গায়ে আমদানিকারক কর্তৃক নির্ধারিত মূল্য ১২৫ টাকা থাকলেও স্বপ্ন সুপার শপ কর্তৃপক্ষ পাশে আরেকটি স্টিকার লাগিয়ে দিয়েছে যেখানে লেখা আছে ২৫০ টাকা। বিদেশি বিভিন্ন কসমেটিকসের কন্টেইনারের গায়ে আমদানিকারকের নাম ঠিকানা না থাকা।সেই সাথে বাংলাদেশি টাকায় সর্বোচ্চ খুচরা বিক্রয় মূল্য সম্বলিত স্টিকার না থাকার কারণে স্বপ্ন সুপার শপকে আরো ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করা হয়।

তদারকি টিমের উপস্থিতি টের পেয়ে ছয় মাসেরও অধিক সময় এর মেয়াদ উত্তীর্ণ বিভিন্ন পণ্য বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে সংরক্ষণ করা, শ্যামবাজারের ব্যবসায়ীরা নিজেরাই যেখানে মিশর, তুরস্কের পেঁয়াজ সর্বোচ্চ ৬০ টাকা কেজি দরে বিক্রয় করবেন মর্মে একমত হয়েছেন এবং বিক্রয় করছে। সেখানে আগোরাতে বিক্রয় করা হচ্ছে ১৩২ টাকায়। তদুপরি হাইব্রিড নাম দিয়ে মিশরের পেঁয়াজ বিক্রয় করে ভোক্তাদের সাথে প্রতারণা করে আসছে।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের দতারকি টিমে ছিলেন, জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক আবদুল জব্বার। এছাড়া তদারকি কাজে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, খাদ্য মন্ত্রণালয় ও ঢাকা জলা প্রশাসনের প্রতিনিধিরা সার্বিক সহযোগিতা প্রদান।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত